২১ নভেম্বর ২০১৯
এনএমআইর প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ

মেরিন সেক্টরে দেশের ভাবমর্যাদা আরো উজ্জ্বল করতে হবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

-

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের (এনএমআই) প্রশিক্ষণ সমাপনকারী প্রশিক্ষণার্থীদের দেশের দূত হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলেছেন, দেশী-বিদেশী সামুদ্রিক জাহাজে অর্পিত দায়িত্ব সততা, আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করে আন্তর্জাতিক মেরিটাইম সেক্টরে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে হবে। প্রতিমন্ত্রী গত মঙ্গলবার চট্টগ্রামে এনএমআই চট্টগ্রামের ২০তম ব্যাচ ও মাদারীপুরের নবম ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ শেষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। এনএমআই’র এবারের ব্যাচে চট্টগ্রাম ও মাদারীপুর মিলে ১৭৮ জন রেটিংস তাদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করে।
নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, এনএমআই চট্টগ্রামকে মেরিটাইম কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র হিসেবে পরিণত করার সরকারি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সম্প্রতি ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে প্রি-সি রেটিং কোর্স পরিচালনার অনুমতি প্রদান করা হয়েছে। প্রশিক্ষণের গুণগতমান অতিকতর বৃদ্ধির লক্ষ্যে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটে ‘সিমুলেটর সংগ্রহ’ শীর্ষক প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে। তিনি বলেন, মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষণের গুণগতমান আন্তর্জাতিক মানের, যা আন্তর্জাতিক নৌ সংস্থা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের মেরিটাইম সেফটি এজেন্সি কর্তৃক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত। ফলে এসব প্রশিক্ষণার্থী জাহাজে চাকরির পাশাপাশি দেশে-বিদেশে আন্তর্জাতিক মানের জাহাজ নির্মাণ প্রতিষ্ঠানে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে। তিনি বলেন, প্রশিক্ষণের গুণগতমান অবশ্যই বজায় রাখতে হবে। চলতি বছর সেরা প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে বিএসসি স্বর্ণপদক অর্জন করেন শ্রেষ্ঠ অলরাউন্ড রেটিং ইঞ্জিন বিভাগের তাসওয়ার জাহান। এ সময় বিভিন্ন বিভাগের কয়েকজনকে পুরস্কার ও চারজনকে সামিট এলায়েন্স স্কলারশিপ প্রদান করা হয়। প্রতিমন্ত্রী পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল জুলফিকার আজিজ, সমুদ্র পরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলামসহ বিভিন্ন শিপিং এজেন্ট প্রতিনিধি এ সময় উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ১৯৯৪ সালে থেকে চলতি বছর পর্যন্ত প্রশিক্ষণ সমাপনকারী রেটিংসদের সংখ্যা দুই হাজার ৯৭৮ জন।

 


আরো সংবাদ