১১ ডিসেম্বর ২০১৯

বায়তুশ শরফে ঈদে মিলাদুন্নবী সা:-এর বর্ণাঢ্য আয়োজন আজ শুরু

-

বায়তুশ শরফ আন্জুমানে ইত্তেহাদ বাংলাদেশের উদ্যোগে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা: উপলক্ষে তামাদ্দুনিক প্রতিযোগিতা, গুণীজন সংবর্ধনা ও আজিমুশ্শান ওয়াজ মাহফিলসহ চার দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালা আজ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে।
পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা: উপলক্ষে চার দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে পাখ-পাখালির আসর, নবীজির শানে না’ত গজল অনুষ্ঠান ‘শানে মোস্তফা’, জাতীয়পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য চার জন গুণী ব্যক্তিকে সংবর্ধনা প্রদান, শেষ দিনে আজিমুশশান ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিল। ১৯৯৪ সাল থেকে ঈদে মিলাদুন্নবী সা: উপলক্ষে বায়তুশ শরফ চার দিনব্যাপী তামাদ্দুনিক প্রতিযোগিতাসহ কিছু নান্দনিক অনুষ্ঠান উদযাপন করে আসছে।
এবারো চার গুণী ব্যক্তিকে সংবর্ধনা এবং বায়তুশ শরফ স্বর্ণ পদক দেয়া হবে। পদকপ্রাপ্তদের মধ্যে রয়েছেন ইসলামী শিক্ষার প্রচার-প্রসার ও ধর্মীয় ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন তালুকদার, চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে দুস্থ-মানবতার কল্যাণের জন্য ইউএসটিসির শিশুরোগবিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা: এ জে এম সাদেক, ইসলামি সংস্কৃতি বিকাশ, শিক্ষার সম্প্রসারণ এবং আর্তমানবতার সেবার মাধ্যমে অগণিত মানুষের কল্যাণে বিশেষ অবদান রাখায় মমতার নির্বাহী প্রধান রফিক আহমদ এবং বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা, আর্তমানবতার সেবা, শিক্ষার সম্প্রসারণ ও ইসলামী সংস্কৃতি বিকাশে বিশেষ অবদানের জন্য নয়া দিগন্তের সাবেক চট্টগ্রাম ব্যুরো চিফ মরহুম হেলাল হুমায়ুন (মরণোত্তর)।
এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বায়তুশ শরফের পীর বাহরুল উলুম শাহ্ সুফি হয়রত মাওলানা মুহাম্মদ কুতুব উদ্দিন বলেছেন, পৃথিবীতে মানবজাতির করুণ আর্তনাদের বিপরীতে রহমত হিসেবে আগমন হয়েছিল রাহমাতুল্লিল আলামিনের। সাথে করে নিয়ে এলেন অনন্ত যুগ ধরে লওহে মাহফুজে সংরক্ষিত সেই জীবন বিধান, যা পরবর্তী বিশে^র দ্রুত পরিবর্তনশীল সব যুগের সব মানব সম্প্রদায়ের জন্য সঠিক চলার পথের দিশারী। কোনো যুগে কোনো সময়ে জাতির জন্য এ বিধান আজ পর্যন্ত অপ্রযোজ্য বলে প্রমাণিত হয়নি এবং ভবিষ্যতেও হবে না।
সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. সাইয়্যেদ মুহাম্মদ আবু নোমান। বক্তব্য রাখেন বায়তুশ শরফ আনজুমানে ইত্তেহাদের সহ-সভাপতি আমান উল্লাহ খান, ঈদে মিলাদুন্নবী সা: উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ ওবাইদুল্লাহ, মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুর রশীদ নূরী, মমতার নির্বাহী প্রধান সাবেক লায়ন গভর্নর রফিক আহমদ, হাফেজ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ।
মাসিক দ্বীন দুনিয়ার সম্পাদক মুহাম্মদ জাফর উল্লাহর সঞ্চালনায় সভাপতির পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক আবুল হায়াত মুহাম্মদ তারেক। অনুষ্ঠানে কোরআন তেলাওয়াত করেন মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা কারি মুহাম্মদ বেলাল উদ্দিন ও নাত পরিবেশন করেন মাওলানা আব্দুস সাকুর।


আরো সংবাদ

সকল