১৫ নভেম্বর ২০১৯

কিশোর আলো’র অনুষ্ঠানে আবরারের মৃত্যু : শিক্ষার্থীদের ৭২ঘণ্টার আল্টিমেটাম

দৈনিক প্রথম আলোর কিশোর ম্যাগাজিন ‘কিশোর আলো’র অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিক্ষার্থী আবরারের মৃত্যুর সময়ের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশের দাবিসহ ৪ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা দাবি পূরণের জন্য ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন। শনিবার দুপুরে নিহত আবরারের সহপাঠিরা এ আল্টিমেটামের ঘোষণা দেয়।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো- ১. ঘটনা চলাকালীন সময়ের সিসিটিভি ফুটেজ দেখাতে হবে, ২. অনুষ্ঠানের মিস ম্যানেজমেন্টের দায় স্বীকার করে কিশোর আলো, ইভেন্ট অর্গানাইজার, আয়শা মেমোরিয়াল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের লিখিত বক্তব্য দিতে হবে, ৩. ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট ছাত্রদের হাতে পৌঁছাতে হবে, ৪. শুধু দুর্ঘটনা নয়, তাদের গাফিলতি, অব্যবস্থাপনা এবং উদাসীনতা উল্লেখ করে পত্রিকায় বিবৃতি দিতে হবে।

৭২ ঘণ্টার মধ্যে দাবিগুলো আদায় না হলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন বলেও জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ঢাকার মোহাম্মদপুরে রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে কিশোর আলোর অনুষ্ঠানে উপস্থিত একই স্কুলের নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী নাইমুল আবরার রাহাত (১৫) অনুষ্ঠান চলাকালে রাত ৯টার দিকে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা যান।

জানা যায়, শুক্রবার কিশোর আলোর অনুষ্ঠান দেখতে এসেছিলেন শিক্ষার্থী নাইমুল আবরার রাহাত। পরে সেখানেই বিদ্যুতায়িত হয়ে গুরুতর আহত হলে অনুষ্ঠানস্থলের জরুরি মেডিক্যাল ক্যাম্পে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দু’জন চিকিৎসক তাকে পরীক্ষা করে দেখেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এঘটনায় আয়োজক কমিটির সমালোচনা করেছেন বিশিষ্টজনেরা। আয়োজনটি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে না করে স্কুলের মাঠে কেন করা হলো - এমন সব প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে। এ বিষয়ে শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে নিজের ফেসবুক আইডিতে ব্যাখা প্রদান করেছেন কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হক। পরে শনিবার সকালে কিশোর আলোর ফেসবুক পেজে এসব প্রশ্নের ব্যাখ্যা দেয়া হয়।

শুক্রবার রাতে আবরারের মর্মান্তিক মৃত্যুর খবর জানিয়ে আনিসুল হক তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লেখেন, আমার জীবনে এর চেয়ে মর্মান্তিক খবর আমি আর পাই নাই। আমি এখন হাসপাতালে আছি। প্রিন্সিপাল স্যার আছেন। নাইমুল আবরারের বাবা-মা এবং আত্মীয়রা আছেন। আমি ও কিশোর আলো আজীবন আবরারের পরিবারের সঙ্গে থাকবো। যদিও এই অপূরণীয় ক্ষতি কিছুতেই পূরণ হবে না। আমি কিংকর্তব্যবিমুঢ় অবস্থায় আছি। নাইমুল আবরারের জন্য দোয়া করছি।


আরো সংবাদ

বিএনপি ঘিরে নতুন তৎপরতা! রোহিঙ্গা গণহত্যা : তদন্তের অনুমতি দিলো আইসিসি আগুন নেভাতে সাহসী ভূমিকা রাখা ১৬ ব্যক্তিকে সংবর্ধনা দিলো হোটেল কস্তুরি ঘুষ সন্ত্রাস মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বাংলাদেশ-নেপাল যোগাযোগ ও বাণিজ্য বাড়ানোর পরামর্শ রাষ্ট্রপতির মেহেদির রঙ মুছতে না মুছতেই... সর্বদা আল্লাহর জিকিরে থাকতে হবে : আল্লামা শফী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত খারাপ, তাকে জামিনে মুক্তি দিন রোহিঙ্গা নিপীড়নের অভিযোগ তদন্তের আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক আদালত ৩০ বছর পর সগিরা হত্যার রহস্য উদঘাটন : চার আসামি গ্রেফতার ট্রেন দুর্ঘটনার পেছনে কোনো ষড়যন্ত্র থাকলে সরকার খতিয়ে দেখবে : প্রধানমন্ত্রী

সকল