১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আহমেদ কবীরের ‍বিরুদ্ধে ‘ইতিহাস সৃষ্টির মতো’ শাস্তি : প্রতিমন্ত্রী

নারী কেলেঙ্কারী
আহমেদ কবীর - ছবি : সংগৃহীত

আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশের পর জামালপুরের বিতর্কিত জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তার স্থলে নিয়োগ পেয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের একান্ত সচিব মো: এনামুল হক। এদিকে, তার বিরুদ্ধে ইতিহাস সৃষ্টি হওয়ার মতো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

আজ রোববার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এবিএম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে আহমেদ কবীরকে প্রত্যাহারের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জামালপুরের ডিসি আহমেদ কবীরকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করে ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে। আর পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের একান্ত সচিব মো: এনামুল হককে জামালপুরের নতুন জেলা প্রশাসক নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটিতে জেলা প্রশাসককে তার খাস কামরায়, তার অফিসের এক নারী অফিস সহায়ককে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা গেছে। ভিডিওটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে। যদিও ভিডিওটি সাজানো দাবি করেন আহমেদ কবীর।

এদিকে, এ ঘটনায় তদন্তে নামে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। প্রাথমিক তদন্তের পরে আহমেদ কবীরকে ওএসডি করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে উদাহরণ সৃষ্টির হওয়ার মতো শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

আজ রোববার দুপুরে সাংবাদিকদের কাছে এক প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেন তিনি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, অবশ্যই উদাহরণ সৃষ্টি করার মতো শাস্তি হবে। চাকরির বিধান অনুযায়ী তার শাস্তি হবে। আমরা আশা করি, দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারব। আমরা তদন্ত কমিটি করে দেব। কমিটি সব বিচার বিশ্লেষণ করে প্রতিবেদন দেবে। আশা করি অল্পদিনের মধ্যেই ব্যবস্থা নেয়া যাবে। সম্প্রতি তাকে দেয়া শুদ্ধাচার সার্টিফিকেট প্রত্যাহার করা হবে বলেও জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

এদিকে, চুয়াডাঙ্গা ও খাগড়াছড়ি জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে সরকার। সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব মো: নজরুল ইসলাম সরকারকে চুয়াডাঙ্গা এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাসকে খাগড়াছড়ি জেলার ডিসি নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

আজ রোববার এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

চুয়াডাঙ্গার ডিসি গোপাল চন্দ্র দাসকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উপসচিব এবং খাগড়াছড়ির ডিসি মো: শহীদুল ইসলামকে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব হিসেবে বদলি করা হয়েছে।


আরো সংবাদ