১২ ডিসেম্বর ২০১৯

৬ বছর পর মিসরের রাস্তায় বিক্ষুদ্ধ তরুণদের ঢল, শত শত আটক

সুয়েজ শহরের আল-আরবিন স্কয়ারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে রোববার রাতে বিক্ষোভকারীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় - এএফপি

দীর্ঘ ছয় বছর পর মিসরের রাস্তায় ঢল নেমেছে তরুণদের। দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দেল-ফাতাহ আল-সিসি'র পদত্যাগের দাবিতে রাস্তায় নেমেছে তারা। বন্দর নগরী সুয়েজে শুক্রবার প্রথম বিক্ষোভ শুরু হয়। এরপর বিভিন্ন শহরে তা ছড়িয়ে পড়ে। তাদের দমাতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দমন-পীড়ন চালায়। দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। রোববার রাত পর্যন্ত সেখান থেকে আটক করা হয়েছে কয়েক শ' বিক্ষোভকারীকে। গার্ডিয়ান এই খবর জানিয়েছে।

২০১৩ সালে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর এই প্রথম বিক্ষোভ করে দেশটির জনগণ।

এদিকে মিসরভিক্তিক এনজিও ইসিআরএফ রোববার জানায়, শুক্রবার রাত থেকে রোববার রাত পর্যন্ত মোট ২২০ জনকে আটক করা হয়েছে। সংস্থাটি জানায়, তারা একটি 'জরুরি কক্ষ' খুলেছে। এখনো পর্যন্ত তারা জেনেছে, সুয়েজ, আলেকজান্দ্রিয়া এবং গিজায় কমপক্ষে এক শ'জনকে আটক করা হয়েছে।

অপর একটি এনজিও জানিয়েছে, শুক্রবার থেকে এ পর্যন্ত ২৭৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

ইসিআরএফের মোহাম্মদ লোতফি জানান, 'আমরা সময়ে সময়ে আটকের খবর পাচ্ছি।'

তিনি আরো বলেন, 'আমার যতটুকু মনে হচ্ছে, দাঙ্গা পুলিশ এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এতো বড় ধরণের বিক্ষোভের কথা কল্পনাও করেনি।'

কায়রোভিত্তিক এনজিওটি কায়রো, গিজা, আলেকজান্দ্রিয়া, সুয়েজ, ডাকালিয়া, কালউবিয়া এবং কাফর এল-শেখ সহ ১২টি স্থান থেকে আটকের খবর রেকর্ড করেছে।


আরো সংবাদ

সকল