২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

যানজটমুক্ত ঢাকায় বেড়ানো

-

প্রতিদিন কাজের চাপে অতিষ্ঠ হয়ে কোথাও ঘুরতে যাওয়ারও ফুরসত মেলে না ঢাকাবাসীর। সারা বছরে কয়েক দিনের জন্য ঈদের সময় একটু যানজটমুক্ত ঢাকার দেখা মেলে। আর তাই এটাই ঘুরে বেড়ানোর সবচেয়ে ভালো সুযোগ। ঈদে যারা ঢাকার বাইরে কোথাও যাননি তারা ঢাকায়ই ঘুরতে পারেন
হাতিরঝিল
ইটপাথরের এই ব্যস্ত শহরে ক্লান্তিকর নাগরিক জীবনে রাজধানীর হাতিরঝিল হয়ে উঠেছে মনোরম এক বিনোদন কেন্দ্র। দিনে কিংবা রাতে যে কেউই ঘুরে আসতে পারেন হাতিরঝিলে। একটু সন্ধ্যা হলেই বেশি জমে ওঠে। ভিন্ন ডিজাইনে করা ব্রিজের নিচ থেকে আলো যেন পুরো পরিবেশকে দিয়েছে অন্য রূপ। আর পুরো হাতিরঝিল ঘুরে দেখতে চাইলে রয়েছে বাস ও ওয়াটার ট্যাক্সি সার্ভিস।
ঢাকা চিড়িয়াখানা
বাঘ-সিংহের গর্জন, মায়াবী চিত্রা হরিণ, পেঁচিয়ে পড়ে থাকা সাপের আলসেমি, বানরের বাঁদরামি, রোদ পোহানো কুমির, ময়ূরের পেখম ছড়ানোর ফ্যাশন শোসহ আরো কত কী দেখার আছে। ঢাকা চিড়িয়াখানা খোলা থাকবে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। প্রবেশ মূল্য জনপ্রতি ১০ টাকা। দুই বছর পর্যন্ত শিশুদের জন্য টিকিট লাগবে না। আর প্রাণী জাদুঘরের প্রবেশমূল্য জনপ্রতি দুই টাকা।
বোটানিক্যাল গার্ডেন
চিড়িয়াখানার পাশেই বোটানিক্যাল গার্ডেন অবস্থিত। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণে অনেকেই বোটানিক্যাল গার্ডেনের সবুজ প্রকৃতির মধ্যে কিছুটা সময় কাটাতে আসবেন ঈদের সময়। আপনি ঘুরে আসতে পারেন পরিবার পরিজনের সাথে।
জাতীয় স্মৃতিসৌধ
১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী বীর শহীদদের স্মরণে জাতির শ্রদ্ধা নিবেদনের চিরন্তন প্রতীক জাতীয় স্মৃতিসৌধ। ঢাকা থেকে ৩৫ কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে সাভার উপজেলায় ৪৪ হেক্টর জায়গা নিয়ে স্থাপন করা হয়েছে স্মৃতিসৌধ কমপ্লেক্স। ঈদের ছুটির তিন দিনই দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকবে জাতীয় স্মৃতিসৌধ।
জিন্দা পার্ক
আপনার গন্তব্য যদি হয় খানিকটা দূরে, আর হাতে যদি থাকে সারা দিনের সময়, তাহলে ঘুরে আসতে পারেন জিন্দা পার্ক। নানা ধরনের গাছপালা, পুকুর, বিরাট মাঠ, ট্রি হাউজসহ বিনোদনের সবরকম ব্যবস্থা আছে। ফ্যামিলি পিকনিকের জন্য জিন্দা পার্ক এখন বেশ পরিচিত জায়গা। কাঠের ব্রিজ পার হয়ে দিঘির মাঝামাঝি তৈরি করা বাঁশের টি রুমে বসে প্রিয়জনের সঙ্গে এক কাপ চা কিংবা জলে পা ডুবিয়ে বসে থাকার সময়গুলো দারুণ উপভোগ করবেন। জিন্দা পার্কে প্রবেশের জন্য টিকিট মূল্য ১০০ টাকা।
ফ্যান্টাসি কিংডম
বর্তমান সময়ের ঢাকাবাসীদের কাছে বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় অবস্থিত ফ্যান্টাসি কিংডম। এই থিম পার্কে ঈদের দিন থাকছে কনসার্ট, নাচ প্রতিযোগিতাসহ নানা আয়োজন। তা ছাড়া বাম্পার বোট, বাম্পার কার, ইজিডিজি, জুজু ট্রেন, রোলার কোস্টার, ম্যাজিক কার্পেট, প্যাডল বোট। আর ওয়াটার ওয়ার্ল্ড তো থাকছেই।
নন্দন পার্ক
সাভারের নবীনগরের নন্দন পার্কে নানা রকম রাইড আর ওয়াটার ওয়ার্ল্ডের পাশাপাশি আছে খুদে চিড়িয়াখানাও। ঈদ উপলক্ষে কনসার্টের ব্যবস্থা থাকছে এখানে। নন্দন পার্ক খোলা থাকবে সকাল ১১টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত।
যমুনা ফিউচার পার্ক
যমুনা ফিউচার পার্ক ঢাকা শহরের অভিজাত জায়গা কুড়িল, বারিধারা, প্রগতি সরণি ও গুলশানের মতো জায়গার কাছাকাছি। এটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এর খুব কাছে অবস্থিত। যমুনা ফিউচার পার্কে থাকছে নানা রকম মজার রাইড, ব্লক বাস্টারে রোমাঞ্চকর মুভি দেখার সুযোগ।
ওয়ান্ডার ল্যান্ড পার্ক
ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক ঢাকার সায়েদাবাদ রেলক্রসিংয়ের পাশে অবস্থিত। খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। এখানে ১৩টি রাইডের মধ্যে রয়েছে ফ্লাওয়ার কাপ, মিনি ক্যাব, বেবি কার, টয় ট্রেন, ভয়েজার বোর্ড, টুইস্টার, সুপার চেয়ার, মেরি-গো-রাউন্ড, ওয়ান্ডারল্যান্ড হুইল ইত্যাদি। প্রবেশমূল্য ছোট-বড় সবার জন্য ৫০ টাকা। আর সব রাইডের মূল্য ৩০ টাকা করে।
দিয়াবাড়ী
দিয়াবাড়ীতে লেকের শীতল বাতাস ও সবুজের সমারোহে মুক্তি মিলবে শহুরে কোলাহল থেকে। সবুজ প্রান্তর, লেক, ফুরফুরে ঠাণ্ডা বাতাস, কাশবন সব মিলিয়ে এক চমৎকার প্রাকৃতিক পরিবেশ। রাজধানীর ভেতরে এ যেন এক ভিন্ন জগৎ।
উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের দিয়াবাড়ীতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ঘুরতে যান নানাবয়সী লোকজন। সারি দিয়ে বাঁধা প্যাডেল বোট। ঘণ্টা ভিত্তিতে ভাড়া করে ঘুরতে পারবেন।


আরো সংবাদ

সকল