২৫ আগস্ট ২০১৯

স্বর্ণমেলায় ১৭৫ কোটি টাকা কর আদায়

-

ব্যবসায়ীদের মাঝে সাড়া ফেলেছে রাজধানীতে আয়োজিত তিন দিনের স্বর্ণ কর মেলা। প্রায় এক হাজার ২০০ ব্যবসায়ী ১৭৫ কোটি টাকার কর দিয়ে তাদের স্বর্ণ, রুপা ও হীরা বৈধ করে নিয়েছেন। এর মধ্যে প্রথম দিনে ২৪ কোটি টাকা, দ্বিতীয় দিনে ২৬ কোটি টাকা এবং শেষ দিন সন্ধ্যা পর্যন্ত ১২২ কোটি টাকার কর আদায় হয়েছে। বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগারওয়ালা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
গত ২৩ থেকে ২৫ জুন অনুষ্ঠিত এই মেলায় প্রায় ১২০০ প্রতিষ্ঠান কর দিয়ে তাদের স্বর্ণ, রুপা বৈধ করেছে। এই মেলা রাজধানী ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলসহ দেশের আটটি বিভাগে অনুষ্ঠিত হয়। এনবিআরের আয়োজনে এ মেলার সার্বিক সহযোগিতা করে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাজুস।
মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি দেশের স্বর্ণ কারিগরদের উদ্দেশ করে বলেন, আপনাদের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে এমন গয়না তৈরি করুন, ক্রেতারা যেন কলকাতামুখী না হয়। আমাদের অনেক ধনী মানুষ আছে কলকাতা, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর থেকে স্বর্ণের গয়না কেনে। আমাদের দেশে অনেক দক্ষ কারিগর রয়েছে তাদের হাতের কাজ অনেক সুন্দর। তারা যদি ভালো মানের গয়না তৈরি করতে পারে তাহলে ধনীরা আর গয়নার জন্য বিদেশমুখী হবে না।
স্বর্ণ কারিগরদের আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ প্রয়োজন উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, কারিগরদের প্রশিক্ষণের জন্য একটি ট্রেনিং ইনস্টিটিউশন খুব দরকার। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঢাকার আশপাশে একটি জুয়েলারি পল্লী স্থাপনের জন্য জমি ও আধুনিক জুয়েলারি ইনস্টিটিউট তৈরিতে সহযোগিতা করব। আগামী এক মাসের মধ্যে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়া হবে বলে তিনি জানান।
এনবিআরের নির্দেশনা অনুযায়ী, প্রতি ভরি স্বর্ণে এক হাজার টাকা, রুপায় ৫০ টাকা ও প্রতি ক্যারেট হীরায় ছয় হাজার টাকা কর দিয়ে অপ্রদর্শিত স্বর্ণ, রুপা বৈধ করার সুযোগ ছিল।


আরো সংবাদ