১৭ অক্টোবর ২০১৯

সৌদিতে ড্রোন হামলা : বিনা প্রমাণে কাউকে দোষারোপ না করতে চীনের আহ্বান

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সৌদি আরবের তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার জন্য ইরানকে দোষারোপ করার পরে সতর্ক বার্তা সংবলিত নোট সোমবার প্রকাশ করেছে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়েছে, সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণ ছাড়াই সৌদি আরবের তেল স্থাপনার ওপর হামলার জন্য কাউকে দোষারোপ করা বেআইনি।

শনিবারের হামলার জন্য হাউছি বিদ্রোহীরা দায় স্বীকার করলেও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও তাতে বিশ্বাস না করে ইরানকে সরাসরি দায়ী করেছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘ইয়েমেন থেকে এই হামলার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সৌদি আরবে প্রায় ১০০ হামলার জন্য ইরান দায়ী।’

এতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা আরো বেড়ে চলেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, তার দেশ পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত। রোববার এক টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, ‘সৌদি আরবের তেলের সরবরাহের ওপর হামলা হয়েছে। আমরা অপরাধীকে চিনি, এমনটা ভাবার কারণ রয়েছে। যাবতীয় তথ্য যাচাইয়ের পর যুক্তরাষ্ট্র পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত। তবে সৌদি আরবের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে পদক্ষেপ নেয়া হবে।’

বেইজিংয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমরা শান্ত থাকতে ও সংযমের জন্য আহ্বান করেছিলাম। আমার মনে হয় চূড়ান্ত তদন্ত ছাড়া কাউকে দোষারোপ করা উচিত না। তথ্য-প্রমাণ ছাড়াই দায়ী করা খুবই দায়িত্বহীনতা। চীনের অবস্থান হলো আমরা বিরোধের প্রসার বা লড়াইকে তীব্রতর করার যেকোনো পদক্ষেপের বিরোধিতা করছি। আমরা সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে আহ্বান জানাই আপনারা এমন পদক্ষেপ নেয়া এড়িয়ে চলুন, যে পদক্ষেপ আঞ্চলিক উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলবে। আমরা আশা করি যে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষই নিজেদের সংযত রাখতে পারে এবং সম্মিলিতভাবে মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষা করতে পারে।’


আরো সংবাদ