২৯ জানুয়ারি ২০২০

যৌন নিপীড়নের অভিযোগ নিকৃষ্ট রাজনীতি : আনোয়ার ইব্রাহিম

মালয়েশিয়ার ভাবি প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম তার এক পুরুষ সহকর্মীর সাথে যৌন সম্পর্কের অভিযোগকে ভিত্তিহীন উল্লেখ করে একে নিকৃষ্টতম রাজনৈতিক অভিযোগ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। ৭০ বছর বয়সী ইব্রাহিমের ক্ষমতাসীন ‘পিপলস জাস্টিস পার্টির’ বার্ষিক সভার ঠিক কয়েক দিন আগে এ বিষয়ে মন্তব্য করলেন তিনি।

গত বুধবার ইব্রাহিমের সাবেক সহযোগী মুহাম্মদ ইউসুফ রাউথার এক বিবৃতি প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী তাকে গত বছরের সেপ্টেম্বরে যৌন সম্পর্কে জোর করার চেষ্টা করেছিলেন। গত বুধবার এক ফেসবুক লাইভে রাউথার তার অভিযোগ পড়ে শোনান। এ বিষয়ে রয়টার্স তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

এ অভিযোগের বিষয়ে ইব্রাহিম বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইউসুফের অভিযোগ ভিত্তিহীন এবং এটি তার প্রধানমন্ত্রিত্ব গ্রহণের প্রক্রিয়াকে নস্যাতের জন্য ষড়যন্ত্রের একটি অংশ। ২০০৮ সালের নির্বাচনে যখন আনোয়ার ইব্রাহিমের নেতৃত্বে বিরোধী দল নজিরবিহীন রকমের ভালো ফলাফল করে, ঠিক তার কয়েক মাস পরই তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনা হয়। দুর্নীতি ও সমকামিতার পৃথক দু’টি মামলায় ইব্রাহিম প্রায় এক দশক জেল খাটেন। এসব অভিযোগ তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংস করার জন্যই করা হয়েছে বলে বিশ্বাস ইব্রাহিম ও তার সমর্থকদের।

ইব্রাহিম বৃহস্পতিবার বলেন, ‘আমি এক মাস আগে এ বিষয়ে শুনেছি। এটি নতুন নয়, প্রভাব খাটানো ও ঘুষ বা যেকোনো কিছু করার চেষ্টা করা, তবে এটি নিকৃষ্ট রাজনীতি। ‘আমাদের কংগ্রেসের দুই দিন বাকি, সুতরাং আপনারা এই সমস্ত বিষয় নতুন করে সামনে আসতে দেখবেন।’ সর্বশেষ অভিযোগগুলো এমন সময়ে এসেছে যখন আনোয়ার ইব্রাহিমের পিপলস জাস্টিস পার্টির (পিকেআর) প্রধান সহকারী এবং প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ ইব্রাহিমকে প্রধানমন্ত্রিত্বের প্রতিশ্রুতি দেয়ার সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী আজমিন আলীর সাথে বিরোধের অবসান ঘটাচ্ছেন। সূত্র : রয়টার্স।


আরো সংবাদ