২৫ আগস্ট ২০১৯

সোনারগাঁও হাটে গরু বেশি, ক্রেতা কম

-

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে কোরবানির গরুর হাট। তবে উপজেলার হাটগুলোতে পর্যাপ্ত গরু ওঠেছে। গরুর চেয়ে ক্রেতা কম। এ দিকে হাটগুলো জমে উঠার আগেই বৃষ্টির কারণে পাইকার ও ক্রেতারা ভোগান্তিতে পড়েছেন। সোনারগাঁও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দু’টি স্থায়ী হাটসহ ২২টি হাটের ইজারা দেয়া হয়েছে। তবে ইজারাদারা জানান, এ বছর শুরুতেই বৃষ্টি হওয়ার কারণে বেচাকেনা কম হওয়ায় ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা করছেন তারা।
উপজেলার মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল অ্যান্ড কলেজের বালুর মাঠে হাটে গিয়ে দেখা যায়, নদী ও সড়ক পথে আসছে কোরবানির পশু। ট্রলারে ও ট্রাকে করে হাটে গরু আসছে। শুক্রবার মেঘনা শিল্পনগরী এলাকার অনেক ব্যবসায়ীকে গরু কিনতে দেখা গেছে। তবে এ হাটে গরুর চেয়ে ক্রেতা কম বলে গরুর বেপারীরা জানান।
মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল অ্যান্ড কলেজ হাটের ইজারাদার ফজলুল হক প্রধান জানান, শুক্রবার গরুর বেচাকেনা শুরু হয়েছে। সড়ক ও নৌপথে গরু আনানেয়া ও বেপারীদের থাকা-খাওয়ার সুব্যবস্থা করা হয়েছে। শতকরা ৩টাকা সরকারি রেটে হাসিল নেয়া হচ্ছে।
পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম জানান, মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল মাঠের হাটে নিরাপত্তা নিশ্চিত হওয়ার কারণে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রচুর গরু ও ছাগল আসে। এই হাট থেকে আয়ের সম্পূর্ণ টাকাই মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল অ্যান্ড কলেজের উন্নয়ন খাতে ব্যয় করা হয়।
হাটে আসা পশু ব্যবসায়ী আজমত আলী জানান, সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থেকে তিনি গরু নিয়ে এসেছেন। তিনি ও তার স্বজনদের ২০টি গরু। তিনি আগে ভাগেই এসে হাটের ভালো স্থান নিয়ে গরুগুলো রেখেছেন। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করার জন্য তিনি ওই স্থানে বালুর বস্তা দিয়ে উঁচু করে রেখেছেন।
সোনারগাঁও সরকারি কলেজ সংলগ্ন বালুর মাঠে গিয়ে জানা যায়, সপ্তাহ খানেক আগে সড়ক ও নদী পথে পশু নিয়ে আসছেন পশু ব্যবসায়ীরা। আগে ভাগে পশু এনে ভালো স্থান নির্বাচন করে সেখানে পশু রেখেছেন। উপজেলায় সবচেয়ে বেশি গুরু ওঠেছে এ হাটে। এ হাটেও গরুর চেয়ে ক্রেতা কম। তবে শুক্রবার থেকে গরু বিক্রি শুরু হয়েছে।
সোনারগাঁও সরকারি কলেজ সংলগ্ন হাটের ইজারাদার সাইফুল ইসলাম বাবু জানান, হাটে প্রচুর গরু রয়েছে। বৃষ্টির কারণে ক্রেতা তেমন আসেনি। তবে শুক্রবার থেকে তাদের হাটে গরু বিক্রি শুরু হয়েছে। সামিয়ানা দিয়ে গরু রাখা হয়েছে। আগামী দু’দিন বৃষ্টি না থাকলে হয়তো বিক্রি ভালো হবে।
সোনারগাঁওয়ে হোসেনপুর কবরস্থান বিল্লাল হোসেনের বাড়ি সংলগ্ন অস্থায়ী পশুর হাট, চর কিশোরগঞ্জ বালুর মাঠ, সোনারগাঁও সরকারি কলেজ সংলগ্ন বালুর মাঠ, হাজী গিয়াস উদ্দিন ইঞ্জিনিয়ারের বালুর মাঠ, মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল অ্যান্ড কলেজ সংলগ্ন বালুর মাঠ, বৈদ্যেরবাজার লঞ্চঘাট বালুর মাঠ, ধন্ধীবাজার সংলগ্ন বালুর মাঠ, উত্তর চরপাড়া বালুর মাঠ, নয়াপুর এলাকার বাচ্চু মেম্বারের বাড়ির পাশের বালুর মাঠ, কাঁচপুর হাউজিং রিলায়েন্স মাঠ, রায়েরটেক বালুর মাঠ, বাংলাবাজার সংলগ্ন বালুর মাঠ, আলমদী দক্ষিণপাড়া চকবাজার বালুর মাঠ, রিবর এলাকার করিমের বালুর মাঠ, তালতলা বালুর মাঠ, মুন্ধিরপুর নোয়াদ্ধা বাবু বাজার বালুর মাঠ, বরাবো বাজার সংলগ্ন বালুর মাঠে অস্থায়ী গরুর হাট বসেছে।


আরো সংবাদ