২৬ মার্চ ২০১৯

বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুর গলিতে জেলে নিহত

বরগুনার পাথরঘাটা থেকে ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে জলদস্যুদের গুলিতে এক জেলে নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টার দিকে ট্রলারের মাঝি আল আমিন (৩২) নামে ওই জেলের মরদেহ পাথরঘাটায় নিয়ে আসা হয়।

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় এ ঘটনা ঘটে। এসময় ১২ জেলে আহত হয়েছে তবে আহত জেলেদের নাম জানা যায়নি। তবে তাদের সকলের বাড়ি বরগুনা জেলার বিভিন্ন স্থানে।

নিহত আল আমিন বরগুনা জেলার সদর উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নের মরখালী গ্রামের আব্দুস ছত্তার মিয়ার ছেলে।

সাথে থাকা নিহতের ছেলে জেলে মো. আসাদ ও মানিক জানান, বুধবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে সাগরে ফালানো জাল টানার সময় হঠাৎ ১০ থেকে ১৫ জনের স্বশস্ত্র জলদস্যু বাহিনী সেলিম খানের মালিকানা এফবি তামান্না ট্রলারের সাথে লাগিয়ে ট্রলারে উঠে কোন কিছু না বলে গুলি ছোঁড়া শুরু করে। এতে ঘটনাস্থলেই আল আমিনের মৃত্যু হয়। এ সময় ট্রলারে থাকা অন্য ১২ জেলেকে অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। আল আমিনের শরীরে ছররা গুলির অসংখ্য ক্ষত দেখা যায়। এ সময় জেলেরা চিৎকার দিলে জেলেদের পিটিয়ে আহত করে ট্রলারে থাকা লাখ টাকার রসদ সামগ্রী লুটে নিয়ে যায়।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, আহত জেলেদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। জলদসুদের নাম পরিচয় এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হানিফ শিকদার বলেন, জেলের বাড়ি বরগুনায় কিন্তু ঘটনাস্থল শরণখোলা থানা এলাকায়। আইনগত ব্যবস্থা কর্তৃপক্ষ নিবে। তবে ময়নাতদন্তেরর জন্য পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, লাশের শরীরে দেশীয় তৈরি বন্দুকের ছররা গুলির অসংখ্য ক্ষত রয়েছে।


আরো সংবাদ