১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মিন্নি শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ

আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি
আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি - ছবি : সংগৃহীত

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি বনে যাওয়া জামিনে মুক্তি পেয়েও রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি শারীরিক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তিনি খুবই বর্তমানে অসুস্থ। মিন্নি পরিবারের সদস্যরা বলছেন, এখন মিন্নির উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন রয়েছে। অপরদিকে মামলার পরবর্তী তারিখ খুব খুব কাছে থাকায় তাকে উন্নত কোনো হাসপাতালে ভর্তি করা সম্ভব হচ্ছে না।

মিন্নির পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আদালতে দেয়া শর্তঅনুযায়ী জামিনে মুক্তি পেয়ে তার পিতার সাথে বাড়িতেই অবস্থান করছেন মিন্নি। স্মৃতিকাতর ও মানসিক বিষন্নতা নিয়ে বরগুনা পৌরসভার মাইঠা এলাকার বাবার বাড়িতে মোজ্জাম্মেল হোসেন কিশোরের জিম্মায় রয়েছেন মিন্নি। কারামুক্ত মিন্নি এখন শারীরিকভাবে খুব অসুস্থ। তিনি মানসিক বিষন্নতায় বাবার বাড়িতে দিন-যাপন করছেন ।

পরিবার সূত্রে আরো জানা যায়, মিন্নি ছিল সদা হাস্যোজ্জ্বল ও স্বজনদের সাথে সদা আলাপী। অনেক স্বজনের মাঝেও এখন সেই মিন্নি ভুগছেন একাকিত্বে। মিন্নি এখন স্বামী রিফাত শরীফের স্মৃতিতে কাতর। একাকী ঘরে দিন কাটে মিন্নির। তবে মিন্নির এমন জীবনযাপনে চিন্তিত রয়েছে পরিবার। উদ্বিগ্ন রয়েছে তার মা বাবা।

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, তার মেয়ে মিন্নির দুই হাঁটুতে কালো দাগ রয়েছে । হাঁটুর ব্যথায় হাঁটতে পারে না সে। সদা আলাপী মিন্নি এখন কারো সঙ্গে কথা বলে না। খেতে চায় না কিছুই। নিজের ঘরে সবসময় চুপচাপ থাকে সে। কখনো কখনো কাঁদে মিন্নি। মিন্নি যে ঘরে থাকে সেই ঘরে রিফাতের সঙ্গে তার অনেক স্মৃতি। এসব স্মৃতি মিন্নিকে আবেগ আপলুত করে। ঘুমের ঘরেও সে কেঁদে ওঠে, মাঝে মাঝে চিৎকার করে মিন্নি।

মোজাম্মেল হোসেন কিশোর আরো বলেন, মিন্নি বর্তমানে অনেক অসুস্থ। তার এখন উন্নত চিকিৎসা দরকার। আমরা মিন্নির আইনজীবীর পরামর্শ নিয়েছি। কয়েক দিন পর রিফাত হত্যা মামলার ধার্য তারিখ রয়েছে। ওই তারিখে মিন্নিকে আদালতে হাজির হতে হবে। ওই তারিখের পরে মিন্নির উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করব। আপাতত চিকিৎসকের পরামর্শে বাড়িতে মিন্নির চিকিৎসা চলছে।

মিন্নির চাচা মো. আবু সালেহ বলেন, মিন্নির খাওয়া নেই, ঘুম নেই । উদাসীনভাবে একেক সময় একেক দিকে তাকিয়ে থাকে মিন্নি। তার সঙ্গে আমি কথা বলেছি। তার পেটে এবং বুকে ব্যথা। আমরা মিন্নিকে নিয়ে চিন্তিত ও উদ্বিগ্ন।
এবিষয়ে জানতে চাইলে মিন্নির আইনজীবী মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, মিন্নির অসুস্থতার বিষয়টি আমি জানি। এ বিষয়ে উচ্চ আদালতে মিন্নির আইনজীবী জেড আই খান পান্নার সঙ্গে কথা বলেছি আমি। মিন্নির চিকিৎসার জন্য আমি মিন্নির বাবাকে পারামর্শ দিয়েছি। আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর রিফাত হত্যা মামলার ধার্য তারিখ রয়েছে। ধার্য তারিখে মিন্নিকে আদালতে উপস্থিত থাকতে হবে।


আরো সংবাদ

বিএসএফের গুলিতে নিহতের লাশ ফিরে পেয়েছে পরিবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ ১২ বছর আগে শেষ ম্যাচ খেলা ভারতীয় ক্রিকেটারের অবসর ঘোষণা গণদলের মহাসচিবের পিতার ইন্তেকালে শোক অনলাইনে ভুল তথ্য শিশুদের জন্য বড় হুমকিগুলোর অন্যতম : ইউনিসেফ জাপানের কাছে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ জামালপুরে আ’লীগ-যুবলীগের ৩ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা ২০-২১ ডিসেম্বর আ’লীগের জাতীয় সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হুয়াওয়ে নিয়ে এলো বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত গতিসম্পন্ন এআই ট্রেনিং ক্লাস্টার এটলাস ৯০০ সৌদি আরবের হাজার কোটি ডলারের প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কি ব্যর্থ হচ্ছে মালালার বিরুদ্ধে হঠাৎ কেন আক্রমণ ভারতীয়দের?

সকল