২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯

সন্তানকে আটকে রেখে মাকে ধর্ষণ-মুক্তিপণ আদায়

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় অপহরণের পর শিশু সন্তানকে আটকে রেখে মাকে ধর্ষণ ও মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে বরিশাল আদালতে মামলা করা হয়েছে।

রোববার এক সন্তানের জননী ধর্ষিতা গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন। ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ মামলাটি সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তদন্ত শেষে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের ভালুকশী গ্রামের এক গৃহবধূর স্বামী চট্টগ্রামে চাকরি করে। চাকরির সুবাদে স্বামী চট্টগ্রামে বসবাস করেন। এই সুযোগে প্রায়ই এনামুল তাকে কুপ্রস্তাব দেয়।

এনামুলের কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ওই গৃহবধূর শিশু সন্তানকে হত্যার হুমকি দেয় সে। ভয়ে গৃহবধূ চট্টগ্রামে তার স্বামীর কাছে চলে যায়। সেখানে থেকে গত ২২ জুলাই রাতে গৃহবধূকে অচেতন করে শিশু সন্তানসহ অপহরণ করে আগৈলঝাড়া উপজেলার ভালুকশী গ্রামের কাজী আব্দুর রহমানের ছেলে এনামুল কাজী।

পরে ঢাকার সাভারে একটি বাসায় শিশু সন্তানকে আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ করে এনামুল। ধর্ষণ শেষে গৃহবধূকে মুক্তি দিতে ৮ লাখ টাকা দাবী করে এনামুল। গত ২ সেপ্টেম্বর ওই গৃহবধূ তার ভাইয়ের মাধ্যমে এনামুলকে ৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেয়। ৩ সেপ্টেম্বর তাদের আবার অচেতন করে আগৈলঝাড়ার ঢাকা-পয়সা সড়কের বাইপাস ব্রিজের পাশে ফেলে রেখে যায়।

এই ঘটনায় রোববার (১৫-৯-২০১৯) ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বাদী হয়ে এনামুল কাজীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তদন্ত শেষে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেন আদালত।


আরো সংবাদ