২৪ অক্টোবর ২০১৯

জুয়ার টাকা না দেয়ায় পিটিয়ে স্ত্রীর হাত ভেঙ্গে দিলো স্বামী

বাবার বাড়ী থেকে জুয়া খেলার টাকা এনে দিতে অস্বীকার করায় দু’সন্তানের জননী ছোকানুর বেগমকে পিটিয়ে (৪০) দু’হাত ভেঙ্গে দিয়েছে স্বামী মজিবর মোল্লা। ঘটনা ঘটেছে রোববার সকালে আমতলী উপজেলার উত্তর টিয়াখালী গ্রামে। আহত গৃৃহবধুকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৩০ বছর পূর্বে মজিবুর রহমান মোল্লার সাথে ছোকানুর বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী মজিবর মোল্লা জুয়া খেলে আসছে বলে এমন অভিযোগ স্ত্রী ছোকানুর বেগমের। ১৯৯৫ সালে ছোকানুরের বাবা ধলু তালুকদার মারা যায়। এরপরই নেমে আসে ছোকানুরের জীবনে নির্যাতন। যখনই জুয়া খেলার টাকার প্রয়োজন হয় তখনই স্ত্রী ছোকানুর বেগমকে বাবার বাড়ীর জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে সে। টাকা না এনে দিলেই নামে অমানবিক নির্যাতন এমন অভিযোগ স্ত্রী ছোকানুরের।

দু’সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে সে বাবার বাড়ী থেকে টাকা এনে দেয়। গত মাসে ছোকানুর ২০ হাজার টাকা বাবার বাড়ী থেকে এনে দিয়েছে। ওই টাকা জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলে। রোববার সকালে স্ত্রীকে বাবার বাড়ী থেকে আবার জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে বলে মজিবর। স্ত্রী ছোকানুর ওই টাকা এনে দিতে অস্বীকার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মজিবর তাকে (স্ত্রী) বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটিয়ে বেধরক মারধর করে।

প্রাণ রক্ষায় প্রতিবেশী আমিনুলের ঘরে আশ্রয় নেয়। ওই ঘরে উঠে মজিবর ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। কিন্তু ওই ঘরের লোকজনের প্রচেষ্টায় সে (ছোকানুর) জীবনে রক্ষা পায় এমনটা জানালো প্রত্যক্ষদর্শী আমিনুল ও সোবাহান বিশ্বাস। স্বামী মজিবরের মারধরে তার দু’হাত ভেঙ্গে গেছে। খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আহত ছোকানুরের দুই হাত ভেঙ্গে গেছে। এছাড়াও তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহৃ রয়েছে। তার চিকিৎসা চলছে।

আহত ছোকানুর বেগম বলেন, বিয়ের ৩০ বছর ধরেই টাকার জন্য মারধর করে আসছে। সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে নিরবে সহ্য করেছি। তিনি আরো বলেন, বাবার মৃত্যুর পর থেকেই আমার স্বামী আমাকে বাবার বাড়ীর জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে বলে। টাকা না এনে দিলেই আমার উপর অমানবিক নির্যাতন চালায়। বিয়ের ৩০ বছরে অন্তত দুই লক্ষ টাকা এনে দিয়েছি। সব টাকা জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলেছে। জুয়া খেলে টাকা হারিয়ে ফেললেই আবার টাকা এনে দিতে বলে। গত মাসেও বাবার বাড়ী থেকে ২০ হাজার টাকা এনে দিয়েছি। ওই টাকাও হারিয়ে ফেলেছে। এখন আবার টাকা এনে দিতে বলে। এ টাকা এনে দিতে আমি অস্বীকার করায় আমাকে মারধর করে দু’হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।

আহত ছোকানুরের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়ে বলেন, মা টাকা এনে না দিলেই বাবা মাকে মারধর করে।

আহত ছোকানুরের মা আলহাজ্ব বকফুল বিবি বলেন, মেয়ের সুখের দিকে তাকিয়ে যখনই টাকা চায় তখনই দিয়ে দেই। ওই টাকা নিয়ে ভালো কিছু করলেও তো হয়।

তিনি আরো বলেন, গত মাসেও ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। টাকা নিয়ে জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলেছে। কিন্তু এখন আর পারছি না।

স্বামী মজিবর মোল্লার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

এবিষয়ে আমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ আবুল বাশার বলেন, খবর পাইনি। পুলিশ পাঠিয়ে খোজ খবর নিচ্ছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ