১৭ নভেম্বর ২০১৯

বরিশালে ডেঙ্গুতে বৃদ্ধের মৃত্যু

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শনিবার সকালে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। মৃত আবদুল খালেক (৬৫) ভোলা সদর উপজেলার চরগাজি গ্রামের মৃত নেজাবুল হকের ছেলে।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. বাকির হোসেন জানান, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে অজ্ঞান অবস্থায় আবদুল খালেক শুক্রবার দুপুরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে শনিবার সকাল ৮টায় তিনি মারা যান।

ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব এ বছর এশিয়ার অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ভয়াবহ আকার ধারণ করেছিল। তবে গত সেপ্টেম্বরের শুরু থেকে পরিস্থিতির উন্নতি হওয়া শুরু হয় এবং বর্তমানে কমে আসছে নতুন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। রাজধানী ঢাকার চেয়ে ঢাকার বাইরে এডিশ মশাবাহিত ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম জানিয়েছে, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৩৮ জন নতুন রোগী। এর মধ্যে ঢাকায় ৫৫ জন এবং বাকি ১৮৩ জন রোগী দেশের অন্যান্য এলাকায় ভর্তি হয়েছেন।

বর্তমানে দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু আক্রান্ত ভর্তি রোগী আছেন ১ হাজার ২১৮ জন। তাদের মধ্যে ঢাকায় চিকিৎসা নিচ্ছেন ৪০০ জন। বাকিরা ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সরকারি তথ্যমতে, গত জানুয়ারি থেকে ১১ অক্টোবর পর্যন্ত সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সর্বমোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৯১ হাজার ৩৫৩ জন। চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন ৮৯ হাজার ৮৯৩ জন।

রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এ বছর ডেঙ্গু সন্দেহে ২৪২টি মৃত্যুর তথ্য পেয়েছে। এর মধ্যে সংস্থাটি এ পর্যন্ত ১৫১টি মৃত্যু পর্যালোচনা করে ৯৩টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে। সূত্র : ইউএনবি।


আরো সংবাদ