১১ ডিসেম্বর ২০১৯

মঠবাড়িয়ায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীদের দিয়ে ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা দেয়ার অভিযোগ

-

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় একটি নিম্ন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ষষ্ঠ শ্রেণীর দুই ছাত্রীকে দিয়ে পঞ্চম শ্রেণীর ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে।

দুই শিক্ষার্থী দুটি বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নেয়ার পর অভিভাবকরা টের পেয়ে পরীক্ষা বন্ধ করে দিয়ে জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসকের বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার তুষখালী নিম্ন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর দুই শিক্ষার্থীকে দিয়ে (নাম প্রকাশ করা হলো না) বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: হাফিজুর রহমান চলমান ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় দক্ষিণ শাখারীকাঠী স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার ছাত্রী দেখিয়ে ছালেহিয়া পশ্চিম ছোট মাছুয়া দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ায়। ওই দুই পরীক্ষার্থীকে গত ১৭ ও ১৮ নভেম্বর ইংরেজি ও বাংলা বিষয়ে পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কেন্দ্রে নিয়ে আসেন ও পরীক্ষা শেষে নিয়ে যান। অবৈধভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের বিষয়টি অভিভাবকদের কাছে ধরা পড়লে গ্রেফতার এড়াতে পরীক্ষা থেকে বিরত রাখেন তাদের।

এ ব্যাপারে এক ছাত্রীর বাবা ও আরেক ছাত্রীর নানা প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই দুই শিক্ষার্থী জানায়, প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান তাদের স্কুলের পরীক্ষা দেয়ার কথা বলে ওই মাদরাসা কেন্দ্রে নিয়ে পরীক্ষা দেয়ায় এবং দক্ষিণ শাখারীকাঠী স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার সুপার তাদেরকে পরীক্ষা শেষে বিদ্যালয়ে পৌঁছে দেন।

স্থানীয়রা জানান, ওই মাদরাসা তাদের নিজস্ব ছাত্র-ছাত্রী না থাকলেও শিক্ষার্থী ভাড়া করে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

দক্ষিণ শাখারীকাঠী স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার সুপার সফিকুল ইসলামকে মুঠোফোনে পাওয়া না গেলেও তুষখালী নি¤œ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: হাফিজুর রহমান তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার স্কুলের শিক্ষার্থীরা মাদরাসা কেন্দ্রে ইবতেদায়ী পরীক্ষা দিয়েছে শুনে আমি তাদের পরীক্ষা দেয়া বন্ধ করে দেই।

পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক আবু আলী মো: সাজ্জাদ হোসেন অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ

সকল