১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

জলাবদ্ধ মাঠ নিয়ে অসহনীয় দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

বরগুনার বেতাগী পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের ১০৯ নং পূর্ব বেতাগী আর্দশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ২ বছর ধরে পানিবন্দি রয়েছে। ফলে ওই বিদ্যালয়ে শিশুদের নতুন করে শিশুরা ভর্তিতে আগ্রহ হারাচ্ছে। বিদ্যালয় মাঠে পানি জমে থাকায় শিশুরা খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

জানা যায়, ১৯৯০ সালে ৩৪ শতাংশ জমির ওপর বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত করা হয়। ২০১৩ সালে জাতীয়করণ করা হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত ১০৫ জন শিক্ষার্থী পড়ালেখা করছে। পাঁচ জন শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন।

বেতাগী বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশে বেতাগী-বাকেরগঞ্জ সড়কের উত্তরপাশে বিদ্যালয়টি অবস্থিত। গত ২ বছর যাবত বিদ্যালয় মাঠে পানি জমে রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে পানি জমে থাকায় গাছের পাতা পড়ে পচে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। সুযোগ হচ্ছে মশার বংশ বিস্তারে। শিক্ষার্থীরা দিন দিন খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

ফলে এ বিদ্যালয়ের পড়ুয়া শিশু শিক্ষার্থীরা খেলাধুলার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তেন মং বলেন, ‘যথারীতি খেলাধুলা করতে না পারলে শিশুদের শারীরিক ও মানসিক উভয়ে ক্ষেত্রে চাপ পড়বে এবং শিশুদের মেধা ও মননশীলতার বিকাশ ঘটবে না।’

তৃতীয় শ্রেণির পড়ুয়া শিক্ষার্থী মারিয়া আক্তার জানায়, ‘বিদ্যালয় মাঠে পানি জমে থাকায় আমরা খেলাধুলা করতে পারছি না।’

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘বিদ্যালয় মাঠে বালু দিয়ে ভরাট করার জন্য প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার বরাবরে আবেদন করা হয়েছে একাধিকবার। কিন্তু ফলাফল কিছুই হয়নি।’

বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মমতাজ বেগম বলেন, ‘মাঠ বরাদ্দের জন্য একাধিকবার শিক্ষা অফিসে জানানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন সাড়া মিলছে না।’

এবিষয় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘বিদ্যালয়টি আমি সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। উপজেলা পর্যায়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ ভরাটের বরাদ্দ নেই। তবে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।’


আরো সংবাদ