২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঢাকা ও চট্টগ্রামে বিপরীত চিত্র শেয়ারবাজার

-

টানা তিন দিন ভালো অবস্থায় থাকার পর দেশের পুঁজিবাজারে গতকাল মিশ্র অবস্থা দেখা দিয়েছে। ঢাকায় তিন প্রধান সূচকের দু’টিতে উন্নতি হলেও অপরটিতে অবনতি হয়েছে। আর চট্টগ্রামে সব সূচকেরই পতন ঘটেছে। ঢাকায় বাছাই করা বেশির ভাগ ভালো কোম্পানির শেয়ারের দরপতন হয়েছে। এ দিন ডিএসইর বাছাই করা ৩০টি কোম্পানিই লেনদেনে অংশ নেয়। এর মধ্যে ১৬টি কোম্পানির শেয়ারের দরপতন হয়েছে। বিপরীতে দাম বেড়েছে ১১টির। বাকি তিনটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসই প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক দশমিক ২৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ২২৭ পয়েন্টে। অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ২০৪ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ১ দশমিক ৭১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৪৫ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ লাখ ৩২ হাজার ১৭৫ বারে ১২ কোটি ৮৫ লাখ ৪৯ হাজার ৪৪৭টি শেয়ার। লেনদেন করা ৩৫৩টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৪৩ দশমিক ০৫ শতাংশ বা ১৫২টির, কমেছে ৪০ দশমিক ৫১ শতাংশ বা ১৪৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ বা ৫৮টির।
সার্বিকভাবে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৫২টির শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৩টির। আর ৫৮টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স দশমিক ২৩ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ২২৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এ ছাড়া ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২০৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এর মাধ্যমে টানা চার কার্যদিবস সূচক দু’টি ঊর্ধ্বমুখী থাকল।
বেশির ভাগ ভালো কোম্পানির শেয়ারের দরপতনের দিনে ডিএসইতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪৭২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৮৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকার। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ১২ কোটি ৪২ লাখ টাকা। বাজারটিতে টাকার পরিমাণে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩০ কোটি ৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মুন্নু সিরামিকের ১৪ কোটি ৭১ লাখ টাকার লেনদেনে হয়েছে। ১৪ কোটি ২৩ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে খুলনা পাওয়ার কোম্পানি। এ ছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছেÑ মুন্নু জুন স্টাফলার্স, জেএমআই সিরিঞ্জ, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, ওরিয়ন ইনফিউশন, বিকন ফার্মাসিউটিক্যাল, সিলকো ফার্মাসিউটিক্যাল ও ফরচুন সুজ।
অপর দিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল লেনদেন হয়েছে ৪৪ কোটি ২০ লাখ ২৭ হাজার ৯২৭ টাকার। সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৯৭৬ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল লেনদেনে অংশ নেয় ২৫৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২২টির, কমেছে ১১০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল টপ টেন গেইনার বা দর বাড়ার শীর্ষ স্থানে আছে ফ্যামিলিটেক্স বিডি লিমিটেড। এই দিন ওই কোম্পানিটির শেয়ারের দর বেড়েছে ১০ শতাংশ বা ৩০ পয়সা। শেয়ারটি সর্বশেষ ৩ টাকা ৩০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এ দিন শেয়ারটি ৫০৩ বারে ২৯ লাখ ৭৭ হাজার ২৮১টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজারমূল্য ৯৫ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। গেইনারের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সায়হাম টেক্সটাইলস। এই দিন ওই কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে ৯ দশমিক ৮২ শতাংশ বা ৪ টাকা ৪০ পয়সা। শেয়ারটি সর্বশেষ ৪৯ টাকা ২০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এ দিন কোম্পানিটি ৪৬৪ বারে ৪ লাখ ৪৮ হাজার ৫২১টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজারমূল্য ২ কোটি ২০ লাখ ৫৭ হাজার টাকা।
তালিকায় তৃৃতীয় স্থানে রয়েছে এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ড। এই দিন ফান্ডটির ইউনিট দর বেড়েছে ৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ বা ৯০ পয়সা। ইউনিট সর্বশেষ ১০ টাকা ১০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। ফান্ডটি ৩৪৭ বারে ৯ লাখ ১২ হাজার ৯৬৬টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজারমূল্য ৮৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। গেইনার তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছেÑ এসএস স্টিল লিমিটেড, অ্যাপলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লি., আরএন স্পিনিং মিলস লি., সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস লি., শাশা ডেনিমস লি., গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স লি. ও জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশন লি.।
অন্য দিকে টপটেন লুজার বা দরপতনের তালিকার শীর্ষ স্থান দখল করে রয়েছে জুট স্পিনার্স লিমিটেড। এই কোম্পানির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৭ দশমিক ৪২ শতাংশ বা ৬ টাকা ২০ পয়সা কমেছে। শেয়ারটি সর্বশেষ ৮২ টাকা ৮০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। এ দিন কোম্পানিটি ২২ বারে ১ হাজার ১১৪টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজারমূল্য ৯২ হাজার টাকা। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক লিমিটেড। কোম্পানিটির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৫ দশমিক ৪৫ শতাংশ বা ৬০ পয়সা কমেছে। কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ১৫ টাকা ৯০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এ দিন কোম্পানিটি ৪৮ বারে ৭ হাজার ১৬২টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজারমূল্য ১ লাখ ১৩ হাজার টাকা।
দর হারানোর তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে এসিআই ফরমুলেশনস লি.। কোম্পানিটির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৪ দশমিক ৯৫ শতাংশ বা ৮ টাকা ৭০ পয়সা কমেছে। শেয়ার সর্বশেষ ১৫৭ টাকা ১০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এ দিন কোম্পানিটির ৫৭৯ বারে ৭৪ হাজার চারটি শেয়ার লেনদেন করে, যার বাজারমূল্য ১ কোটি ১৮ লাখ ৯১ হাজার টাকা। তালিকায় ওঠে আসা অন্যান্য কোম্পানি হচ্ছেÑ এসিআই লি., দুলামিয়া কটন স্পিনিং মিলস লিমিটেড, ভিএফএস থ্রেড ডাইং লি., শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লি., সান লাইফ ইন্স্যুরেন্স লি., ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স লি. ও ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

 

 


আরো সংবাদ

ইয়েমেনের হুদাইদায় সামরিক অভিযান শুরু সৌদি জোটের জি কে শামীমের অবিশ্বাস্য উত্থান গণতন্ত্র-খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে কঠোর আন্দোলন চান আইনজীবীরা ইফায় নতুন করে উত্তেজনা বোর্ডের সিদ্ধান্ত অমান্য করে কর্মকর্তা বদলি ও শোকজ আওয়ামী লীগের অনেকে দেশ ছেড়ে পালানোর চেষ্টায় যাকে ধরা হবে তাকেই বহিষ্কার : যুবলীগ চেয়ারম্যান তরুণীসহ গ্রেফতার ২০, বিপুল মাদক ও টাকা জব্দ ইরানের ন্যাশনাল ব্যাংকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আশা করি খেলাঘরের আন্দোলন সফলভাবে এগিয়ে যাবে : ড. আনিসুজ্জামান ধানমন্ডি ক্লাবে র‌্যাবের অভিযান বশেমুরবিপ্রবিতে ভিসির পদত্যাগের দাবিতে শিক্ষার্থীদের অনশন চলছে

সকল