২৬ মার্চ ২০১৯

শ্রমিকদের কাছে চাঁদা দাবি আ’লীগ এমপির! না দিলে হত্যার হুমকি

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য দিদারুল আলম দিদার - সংগৃহীত

পরিবহন শ্রমিকদের কাছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এমপি চাঁদা দাবি করায় আগামীকাল সোমবার থেকে বৃহত্তর চট্টগ্রামে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। তাদের দাবি, সীতাকুণ্ড আসনের এমপি দিদারুল আলম দিদার পরিবহন শ্রমিক নেতাকে ‘মারধর’ এবং ‘চাঁদা দিতে হবে’ বলে চাপ সৃষ্টি করায় তারা এই কর্মসচি দিয়েছে। তবে এমপি দিদার গণমাধ্যমের কাছে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ১৪ জানুয়ারি ভোর ৬টা থেকে ১৬ জানুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত এ ধর্মঘট পালিত হবে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টায় এমপি দিদারুল আলম বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক অলি আহমদ ও অলঙ্কার থেকে সীতাকুণ্ড রুটে চলাচলকারী ৮ নম্বর রুটের মালিক সমিতির নেতাদের বাসায় ডাকেন। এ সময় তিনি অলঙ্কার থেকে সীতাকুণ্ড রুটে গাড়ি চলাচলের নিয়ন্ত্রণ তাকে ছেড়ে দিতে বলেন। মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ট্রেড ইউনিয়নের আইন ও শ্রমিকদের অর্পিত দায়িত্ব শ্রমিকের মতামত ছাড়া ছেড়ে দেয়া সম্ভব নয় বলে জানালে তিনি তাকে প্রতি মাসে দুই লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে বলে চাপ সৃষ্টি করেন।

একপর্যায়ে তিনি ৮ নম্বর রুটে মালিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক খোরশেদ আলমকে নিজ হাতে মারধর শুরু করেন। এই ঘটনার কারণ জানতে চাইলে এমপি দিদারুল আলম উত্তেজিত হয়ে শ্রমিকনেতা অলি আহমদের দিকে তেড়ে গিয়ে তাকেও মারধর করেন। প্রয়োজনে রিভলবার দিয়ে গুলি করে হত্যা করার হুমকি দিয়ে বের হয়ে যেতে বলেন।

সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এর প্রতিবাদে গতকাল বিকেলে সংগঠনের এক জরুরি সভায় ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এতে আগামীকাল সোমবার ভোর ৬টা থেকে বুধবার ভোর ৬টা পর্যন্ত বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাঁচ জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় ৪৮ ঘণ্টা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ মুছা।

ধর্মঘটকে বেআইনি আখ্যা দিয়ে একাংশের প্রত্যাখ্যান

এ দিকে গতকাল শনিবার সকালে এনায়েত বাজারে জাতীয় রেল শ্রমিকলীগ কার্যালয়ে বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক এম জসিম রানার সভাপতিত্বে সদস্যসচিব উজ্জ্বল বিশ্বাসের সঞ্চালনায় এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তারা বলেন, বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাঁচ জেলায় চাঁদাবাজির বৈধতা নিতে ও দেশের স্বনামধন্য পরিবারের সদস্য এমপি দিদারুল আলমের সম্মান ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্যে বিশেষ কারো এজেন্ডা বাস্তবায়নে আগামী ১৪ জানুয়ারি থেকে ৪৮ ঘণ্টার বেআইনি সড়ক পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট ডেকেছে।

তারা ধর্মঘট প্রত্যাখ্যান করে বলেন, যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভুলবুঝাবুঝির সৃষ্টি হয় তা আলোচনায় মীমাংসাযোগ্য, তা না করে বেআইনি ধর্মঘট আহ্বান রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল। এতে বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, মো: ইলিয়াছ, মো: ওসমান গণি, মো: এমরান মিয়া, শাহ আলম হাওলাদার, সুনীল দেবনাথ, মো: মনির হোসেন, নুরুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন, বাবুল চৌধুরী, মো: মোতাহের হোসেন, মো: আবুল হোসেন মিয়া, মো: আমিনুল হক, মোশাররফ হোসেন খান, বজলুর রহমান, সদস্য আব্দুল হালিম আদু, মো: কাশেম, মো: আজিজ, মো: বেলাল, মো: সোহেল প্রমুখ।



আরো সংবাদ

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সেনা ও নৌবাহিনীতে অনারারি কমিশন প্রদান স্বাধীনতা দিবসের বাণীতে বিএনপি সার্বভৌমত্বকে বিপন্ন করতে দেশী-বিদেশী মহল ততপর শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ : পানিসম্পদ উপমন্ত্রী রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের অভিযোগে সাবেক ছাত্রদল নেতা আশেক গ্রেফতার এক মিনিট ব্ল্যাকআউট কর্মসূচি পালন ঘুষ না খাওয়ার শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী ঘুষ না খাওয়ার শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী ষ ঘুষ না খাওয়ার শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী ষ নারায়ণগঞ্জের এমপি খোকাকে নির্বাচনী এলাকা ছাড়ার নির্দেশ বিএনপি নেতা রবিউল আউয়ালের সন্ধান দাবি মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় গাইবান্ধার ৯ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন

সকল