১৫ জুলাই ২০১৯

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত বান্দরবানের ছাত্রলীগের নেতা

কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত তিনজনের মধ্যে একজন বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলা ছাত্রলীগের উপ দপ্তর সম্পাদক। তার নাম রাশেদুল ইসলাম সৌরভ (২২)।

তিনি নাইক্ষ্যংছড়ির সদরের রূপনগর এলাকার মুহাম্মদ ইউনূসের ছেলে। রোববার ভোররাতে টেকনাফের হোয়াইক্যং এলাকায় র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিনজন নিহত হয়। এরা হলেন রাশেদুল ইসলাম সৌরভ, কক্সবাজারের চৌধুরী পাড়ার দিল মোহাম্মদ (৪২) ও চট্টগ্রামের আমিরাবাদ এলাকার মাস্টার হাটের বাসিন্দা শহিদুল ইসলাম (৪২)।

এদের মধ্যে রাশেদুল ইসলাম সৌরভ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের নব নির্বাচিত কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক। তিনি দীর্ঘদিন থেকে কক্সবাজারে থেকে পড়ালেখা করে আসছিল। তার বাবা মোহাম্মদ ইউনুস কক্সবাজার সদর হাসপাতালে লাশ সনাক্ত করেছেন। সকালে টেকনাফের হোয়াইক্যং এলাকা থেকে লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে নিয়ে আসা হয়।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ বদরুল্লা জানিয়েছেন সম্প্রতি নবগঠিত উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে রাশেদুল ইসলাম সৌরভকে উপ-দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। এর আগে সে নাইক্ষ্যংছড়ি হাজী আবুল কালাম ডিগ্রি কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছে।

তবে তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ ছিলোনা বলে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জানিয়েছেন। র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ির রাশেদুল ইসলাম সৌরভ নিহত হওয়ার ঘটনার কথা তিনি শুনেছেন বলে জানিয়েছেন।

তবে উপজেলা কমিটিতে রাশেদুল ইসলাম সৌরভকে কেন রাখা হয়েছে এ বিষয়ে বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ কাউসার সোহাগ কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি খবর নিয়ে জানাবেন বলে জানিয়েছেন।

নিহত রাশেদুল ইসলাম সৌরভ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন কিনা তা নিয়ে এলাকায় এখন আলোচনা চলছে।


আরো সংবাদ