১৯ আগস্ট ২০১৯

বোনকে পড়ানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে শিক্ষকের আপত্তিকর ভিডিও ধারণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক মো. নজরুল ইসলামকে মঙ্গলবার রাত ১০টায় নবীনগর পৌর সদরের আদালত পাড়ার কেরামত আলী টাওয়ার ভবনের ২য় তলায় এক বাসায় আটকে রেখে মারধর করে জোরপূর্বক এক নারীর সাথে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে পাচঁ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায়, অজ্ঞাত পরিচয়ধারী এক ব্যক্তি তার বোনকে প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে ফোনে কেরামত আলী টাওয়ার ভবনের ২য় তলায় ডেকে নেন শিক্ষক নজরুল ইসলামকে। ওইস্থানে যাওয়ার পরপরই তাকে আটক করে তার মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে দিয়ে মারধর করে জোরপূর্বক এক নারীর সাথে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে পাচঁ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে সন্ত্রাসীরা।

এ সময় তার অবস্থা অবনতি দেখে সন্ত্রাসীরা রাতেই তাকে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীদের আক্রমণে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই শিক্ষককে রাতেই নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর বুধবার বিকেলে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।

এরই প্রতিবাদ বুধবার দুপুরে নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে নবীনগর সদরে বিভিন্ন সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

ঘটনার সতত্য নিশ্চিত করে নবীনগর থানার অফিসার্স ইনচার্জ রনোজিত রায় বলেন, এ ঘটায় মামলার প্রস্তুতি ও তদন্ত চলছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


আরো সংবাদ