২৫ আগস্ট ২০১৯

আদালত বা রাষ্ট্রপতির ক্ষমাই খালেদার মুক্তির পথ : হানিফ

-

আন্দোলন করে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয় মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির একমাত্র পথ আইনি প্রক্রিয়া। তবে আরেকটি পথ খোলা আছে, রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমেও তিনি মুক্তি পেতে পারেন। এর বাইরে আর কোনো পথ খোলা নেই।’
আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘স্বপ্ন ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে বিএনপির আন্দোলনের হুমকির জবাবে হানিফ বলেন, ‘আন্দোলন সংগ্রামের হুমকি আওয়ামী লীগকে দিয়ে লাভ নেই। আওয়ামী লীগের জন্মই হয়েছিল পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আন্দোলন করে। সেই দলের বিরুদ্ধে আন্দোলনের হুমকি হাস্যকর।’
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি রিয়াজউদ্দিন রিয়াজের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা খন্দকার বজলুল হক, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, সাবেক রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফার্মেসি অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক আ ব ম ফারুক, বুয়েটের সহকারী অধ্যাপক সানিয়া বিনতে মাহতাব, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরীসহ অনেকেই।
আলোচিত ওয়ান-ইলেভেনের কুশীলবদের বিচারের দাবি জানিয়ে হানিফ বলেন, ‘ওয়ান- ইলেভেন ছিল মাইনাস ওয়ান ফর্মুলা। শুধু বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করার জন্যই বিএনপির সাথে দেশী- বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীরা ওয়ান-ইলেভেন ঘটায়। পরে বিদেশী দোসররা যখন বুঝতে পারে বিএনপিকে দিয়ে আর হবে না, ঠিক তখনই একটি পাপেট সরকার তৈরির জন্য ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে নোবেল পুরস্কার দিয়ে সামনে নিয়ে আসা হয়।’ হানিফ আরো বলেন, ষড়যন্ত্র একটির পর একটি হচ্ছে। সেই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন। এ দেশের অগ্রযাত্রা কেউ ঠেকাতে পারবে না।

 


আরো সংবাদ