১৯ আগস্ট ২০১৯

বাংলাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক : বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা

-

বাংলাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ড. এডউইন সেরিজা স্যালভাদর। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি এলার্মিং তবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয়। এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাথে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একযোগে কাজ করবে।
গতকাল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের সাথে বৈঠক শেষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। বনানীতে দক্ষিণের মেয়রের বাসভবনে বেলা সাড়ে ১১টা থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল অংশ নেয়। এ সময় সিটি করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
ড. এডউইন বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আমরা সিটি করপোরেশন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং অন্যান্য সরকারি সংস্থার সাথে কাজ করতে চাই। তারই অংশ হিসেবে মেয়রের সাথে বৈঠক করেছি আমরা। কিভাবে আমরা একসাথে কাজ করে সমস্যার সমাধান করতে পারি, তা নিয়ে আলোচনা করেছি। তিনি আরো বলেন, যেখানে সমস্যা আছে, তার সমাধান বের করতেই কাজ করব আমরা। এডিস মশা বাংলাদেশে নতুন আসেনি, অনেক আগে থেকেই ছিল। এই সমস্যা মোকাবেলায় সঠিক পরিকল্পনা দরকার। আশপাশের দেশগুলো এবং আগের বছরের অবস্থা তুলনা করলে দেখা যাবে সার্বিক পরিস্থিতি বেশ জটিল। তবে মহামারী বা আতঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু না।
সাঈদ খোকন বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাথে আমাদের মশার ওষুধ, ডেঙ্গুসহ এ-সংক্রান্ত সার্বিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তারা বলেছেন, বাংলাদেশসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি দেশে এখন ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। এ জন্য সতর্ক থাকার কোনো বিকল্প নেই। ওষুধের মান বিষয়ে তারা পরীক্ষা করে আমাদের জানাবেন বলে জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে আমাদের নিয়মিত তথ্যবিনিময় হবে। এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, উত্তর সিটিতে যে ওষুধ বাতিল করেছে আমরা সেই ওষুধ কখনোই নেয়নি। আমরা সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ওষুধ নেই। মেয়র আরো বলেন, গত কয়েক বছরের চেয়ে এবার ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব বেশি। ফিলিপাইন থাইল্যান্ডসহ পার্শ্ববর্তী অনেক দেশে ডেঙ্গু মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। তবে আমাদের দেশে এখনো সে পর্যায়ে যায়নি। আমরা যদি এখনই সতর্ক না হই তা হলে পরিস্থিতি জটিল হতে পারে। এ জন্য আমাদের আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হতে হবে। ডেঙ্গু মোকাবেলায় সিটি করপোরেশন ও জনগণকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে।


আরো সংবাদ