১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
৩২ লাখ টাকা জরিমানা আদায়

এডিস মশার লার্ভা ধ্বংসে ৭৫ হাজার বাড়িতে ডিএসসিসির অভিযান

-

এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করতে গত এক মাসে ৭৫ হাজার বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরে শন (ডিএসসিসি)। এ সময় ভবনে মশার লার্ভা পাওয়া যাওয়ায় চারজনকে কারাদণ্ড প্রদান, ১৬ বাড়ির মালিককে সতর্ককরণ এবং প্রায় ৩২ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
রাজধানীসহ সারা দেশে ডেঙ্গু রোগের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় এডিস মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংসে গত ২৩ জুলাই থেকে বাড়ি বাড়ি অভিযান শুরু করে ডিএসসিসি। সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এডিস মশার লার্ভা নিয়ন্ত্রণের টার্গেট ধরে এ কার্যক্রম শুরু করে সংস্থাটি। গতকাল পর্যন্ত এক মাসে মোট ৭৫ হাজার ২৪৩টি বাড়ি সরেজমিন পরিদর্শন করে ডিএসসিসির টিম। বিশেষ করে নির্মাণাধীন ভবনে বেশি অভিযান চালানো হয়। এ সময় অনেক ভবনে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়। এ কারণে তাদের ৩১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তবে যেসব প্রতিষ্ঠান জরিমানা পরিশোধ করেনি এমন চারটি প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বরতদের কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ ছাড়া ১৬ বাড়ি মালিককে সতর্ক করা হয়।
সর্বশেষ গতকাল ডিএসসিসির পাঁচটি ভ্রাম্যমাণ আদালত ১৯৮টি বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় দুইজনকে কারাদণ্ড প্রদান, পাঁচজন বাড়ির মালিককে সতর্ক করা এবং চামেলিবাগের কনকর্ড টুইন টাওয়ারসহ মোট ছয়টি বাড়ি থেকে ৩৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এর মধ্যে সায়েন্স ল্যাবরেটরি, মিরপুর রোডের হোল্ডিং নম্বর ৪৩-এর মো: সাজুকে (৪৫) এবং হোল্ডিং নম্বর ৪৪ এর মো: নজরুল ইসলামকে (৩০) একদিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও অঞ্চল-১ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মিজানুর রহমান। এ ছাড়া তিনি ৪৩টি বাড়ি পরিদর্শন করেন।
অঞ্চল-২ এ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ জাহিদ হাসান শান্তিনগরের চামেলীবাগ টুইন কনকর্ড টাওয়ারে এডিস মশার লার্ভা ও জমে থাকা পানির কারণে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। অঞ্চল-৩ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বাবর আলি ৩০টি বাড়ি পরিদর্শন করেন; তবে এডিস মশার লার্ভা পাননি। অঞ্চল ৪ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা উদয়ন দেওয়ান ৩৪, ৩৫ এবং ৩৬ ওয়ার্ডের ৬০টি বাড়ি পরিদর্শন করেন। এর মধ্যে পাঁচটি বাড়ির মালিককে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে পাওয়ায় সতর্ক করে দিয়েছেন।
অঞ্চল ৫ এ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোনিয়া আক্তার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: শহীদুল্লাহ যাত্রাবাড়ি এলাকার ৩৯, ৪০ এবং ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের মোট ৬৫টি বাড়ি পরিদর্শন করেন। এরমধ্যে পাঁচটি বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় বাড়ির মালিকদের সাত হাজার টাকা জরিমানা করেন।

 


আরো সংবাদ