২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

৪৯ বছরে এই প্রথম

-

যেন একের পর এক উইকেট ছুড়ে দেয়ার প্রতিযোগিতায় নেমেছিলেন পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা। যার ফলে আবুধাবি টেস্ট বাঁচাতে পারেনি সরফরাজ আহমেদের দল। উইকেটে টিকে থাকার দরকার ছিলো আর একটি সেশন। তাহলে ড্র হতো ম্যাচ শেষ টেস্টে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে ১২৩ রানে। ম্যাচের সাথে সিরিজও হেরেছে তারা ২-১ ব্যবধানে।

এর ফলে ৪৯ বছরে প্রথমবারের মতো নিজ দেশের বাইরে পাকিস্তানকে টেস্ট সিরিজে হারালো নিউজিল্যান্ড। চমৎকার ভাবে তারা এই ম্যাচে ঘুরে দাড়িয়ে জয় তুলে নিয়েছে। অথচ এই ম্যাচে প্রথম তিন দিন স্পষ্ট এগিয়ে ছিলো পাকিস্তান। চতুর্থ দিন কেন উইলিয়ামসন ও হেনরি নিকলসের জোড়া সেঞ্চুরি নিউজিল্যান্ডকে চালকের আসনে বসায়।

 ম্যাচের শেষ দিন চতুর্থ ইনিংসে ২৮০ রান তাড়া করতে নেমে মিডল অর্ডারে বাবর আজম ও সরফরাজ আহমেদ ছাড়া আর কারো মধ্যেই ছিলো না ম্যাচ বাঁচানোর তাড়না। কিউই স্পিনারদের বলে একের পর এক উইকেট ছুড়ে এসেছেন। সর্বোচ্চ ৫১ রান করা বাবর আজমও আউট হয়েছেন ছক্কা মারতে গিয়ে, অথচ তখন দরকার ছিলো উইকেট কামড়ে পড়ে থাকা। ২৮ রান করা সরফরাজ বলের লাইন বুঝতে না পেরে বোল্ড হয়েছেন। এই দুজনের ৪৩ রানের জুটিই ইনিংসে সর্বোচ্চ। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান অলআউট হয়েছে ১৫৬ রানে।

নিউজিল্যান্ডের স্পিনাদের কৃতিত্ব রয়েছে পাকিস্তানকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দিতে। আজাজ প্যাটেল ও সমারভিল দুজনেই নিয়েছেন ৩টি করে উইকেট।

শুক্রবার সকালে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস ৭ উইকেটে ৩৫৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সাথে হেনরি নিকলসের ২১২ রানের জুটিই মূলত নিউজিল্যান্ডকে চালকের আসনে বসায়। উইলিয়ামসন ১৩৯ রান করে আউট হলেও নিকলস অপরাজিত ছিলেন ১২৬ রানে।

এরপর ২৮০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে পাকিস্তান।

স্কোর :

নিউজিল্যান্ড : ২৭৪ ও ৩৫৪/৭ ডিক্লে.
পাকিস্তান : ৩৪৮ ও ১৫৬


আরো সংবাদ