২১ মার্চ ২০১৯

চিটাগংকে সহজ চ্যালেঞ্জ দিলো খুলনা

-

শুরুটা ভালোই করেছিল খুলনা টাইটানস। পরে দুটি উইকেট খোয়ালেও রানের চাকা সচল রেখেছিলেন ডুয়াইন মালান ও মাহমুদুল্লাহ জুটি। কিন্তু দলীয় ১১৮ রানে এই জুটির ভাঙনের পরই বিপদ শুরু হয়। পরের ওভারে পর পর দুই বলে দুই উইকেটের পতন হয়। সাঝঘরে ফিরে যান মারমুখী ব্যাটসম্যান ব্রেথওয়েট ও ধীর-স্থির মাহমুদুল্লাহ। পরের ওভারে নাজমুল হোসেন শান্ত। এই উইকেট পতনের ধারবাহিকতায় নির্ধারিত ২০ ওভারে খুলনার সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫১ রান।

সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন ডুয়াইন মালান। আর চিটাগংয়ের হয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট শিকার করেন নাজমুল ইসলাম।

বিরতির পর ব্যাট করতে নামবে চিটাগং ভাইকিংস।

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় চিটাগং ভাইকিংস। পরিবর্তীত সময়ে দুপুর সাড়ে ১২টার বদলে আড়াইটায় ম্যাচটি শুরু হয়।

ব্যাট করতে নেমে শুভ সূচনা হয়েছিল খুলনার। কিন্তু দলীয় ৩১ রানে নাঈমের বলে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার পল স্টারলিং (১৮)। দুই ওভার পরেই ফ্রাইলিংকের শিকার হন অপর ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকি (২০)।

এরপর ডুয়াইন মালান ও মাহমুদুল্লাহ শক্ত জুটি গড়েন। কিন্তু দলীয় ১১৮ রানে সাজঘরে ফিরেন মালান। এরপর উইকেটের ধারাবাহিক পতনে ৬ উইকেটে ১৫১ রানে শেষ হয় খুলনার ইনিংস।

অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ চার বাউন্ডারিতে ৩১ বলে ৩৩ রান করেন।


আরো সংবাদ