২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

৩১ বল খেলে ১১ রান করতে পারেননি গেইল

৩১ বল খেলে ১১ রান করতে পারেননি গেইল - ছবি : সংগৃহীত

এ যেন ভিন্ন গ্রহের ক্রিস গেইল। যে পরিচয়ের ভক্তদের কাছে পরিচিত তিনি, যে ধাঁচের ব্যাটিং তিনি করেন তার চেয়ে পুরোপুরি আলাদা স্বভাবের মানুষ হিসেবে বৃহস্পতিবার ভারত-ওয়েস্টইন্ডিজ ম্যাচে দেখা গেছে তাকে। প্রভিডেন্সে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ অবশ্য বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছে, কিন্তু স্বভাব বিরুদ্ধ গেইলের কারণেই ম্যাচটি সবচেয়ে আলোচিত এখন।

বৃহস্পতিবার ভারতের বিপক্ষে মাঠে নেমেই রেকর্ড গড়েছেন গেইল। ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড এখন তাঁর (২৯৬ ম্যাচ)। এ পথে তিনি পেছনে ফেলেছেন ব্রায়ান লারাকে। ‘প্রিন্স অব ত্রিনিদাদ’-এর আরেকটি রেকর্ড এ ম্যাচে খুব সহজেই টপকে যেতে পারতেন গেইল। সহজাত ব্যাটিং করতে পারলে তাঁর জন্য ওই রেকর্ডটি গড়া কোনো বিষয় ছিল না। কিন্তু ১১তম ওভারে গেইল যখন আউট হলেন, তখন তাঁর নামের পাশে লেখা ৩১ বলে ৪! ভুল পড়েননি। বাউন্ডারি নয়, দৌড়ে এ চার রান নিতে হয়েছে গেইলকে।

সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি গড়ার পর গেইলের সামনে যে রেকর্ডটি ছিল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের মাইলফলক। এ রেকর্ডটিও ব্রায়ান লারার, অথচ গেইল স্বাভাবিক খেললে এ রেকর্ড আজ তাঁর দখলে থাকার সম্ভাবনাই ছিল সবচেয়ে বেশি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ২৯৫ ম্যাচে ১০৩৪৮ রান করেছেন লারা। তাঁকে পেছনে ফেলতে গেইলের দরকার ছিল মাত্র ১১ রান। অথচ ৩১ বল খেলেও গেইল এ কয়টা রান করতে পারেননি! যেখানে এ ব্যাটসম্যানেরই রয়েছে ৩০ বলে সেঞ্চুরি আর ১২ বলে ফিফটি তুলে নেওয়ার মতো নজির। আর ত্রিশের কম বল খেলে ফিফটি তো তুলে নিয়েছেন অহরহ।

কাল লারার রেকর্ড ভাঙতে না পারলেও শম্ভুকগতির ব্যাটিংয়ে একটি নজিরও গড়েছেন গেইল। ওয়ানডেতে ন্যূনতম ২৫ বল খেলেছেন, গেইলের এমন ইনিংসগুলোর মধ্যে এটি ছিল মন্থরতম। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩ ওভারে ১ উইকেটে ৫৪ রান তোলার পর বৃষ্টির জন্য খেলা আর মাঠে গড়ায়নি। ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।


আরো সংবাদ