১৯ নভেম্বর ২০১৯

হাশিম আমলার যত রেকর্ড

হাশিম আমলা -

দুই দিন আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনার হাশিম আমলা। দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসের সেরা ক্রিকেটারদের একজন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্ব ক্রিকেটরও সেরাদের একজন। তবে এবারের বিশ্বকাপটি ভালো যায়নি এই ব্যাটসম্যানের।

বয়স ৩৬ হয়ে কয়েক মাস আগেই। চাইলে আরো অন্তত ২-৩ বছর খেলা চালিয়ে যেত পারতেন; কিন্তু পরবর্তী বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয় হয়তো। সেটি বুঝতে পেরেই নতুনদের জায়গা করে দিতে নিজ থেকেই সরে দাড়িয়েছেন আমলা।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি করা একমাত্র ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা। দেশটির পক্ষে টেস্টে সর্বোচ্চ রানও তার(৯২৮২)। হয়তো আর কিছুদিন খেলে ১০ হাজার রানের গৌরবময় মাইলফলক স্পর্শ করে বিদায় নিতে পারতেন; কিন্তু চরম পেশাদার একই ক্রিকেটার সেই ব্যক্তিগত অর্জনের কথা ভাবেননি। আগামী বিশ্বকাপের জন্য দলের নতুন খেলোয়াড়দের গড়ে তোলার সুযোগ দিতে সরে দাড়িয়েছেন।

টেস্ট ও ওয়ানডে উভয় ধরনের ক্রিকেটেই ২৫টির বেশি সেঞ্চুরি আছে এমন ক্রিকেটাদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন আমরা। শচীন টেন্ডুলকার, রিকি পন্টিং, কুমার সাঙ্গাকারা ও বিরাট কোহলির সাথে সেই এলিট ক্লাবের গর্বিত সদস্য আমলা। ১২৪ টেস্টে আমলার সেঞ্চুরি ২৮টি আর ১৮১ ওয়ানডেতে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেছেন ২৭ বার। ওয়ানডেতে তার রান ৮ হাজারের বেশি। উভয় ফরম্যাটে ৪৫ গড়ে ৮ হাজার রান করা ক্রিকেটার বিশ্বে মাত্র দুজন, হাশিম আমলা ও এবিডি ভিলিয়ার্স।

ধীরস্থির খেলোয়াড় হিসেবে পরিচিত হলেও টি-টোয়েন্টিতেও আমলার রেকর্ড ভালো। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এবি ডি ভিলিয়ার্সের টি-টোয়েন্টি স্ট্রাইক রেট ১৩৫, আর আমলার ১৩২। চতুর্থ দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে এই ফরম্যাটে এক হাজার রান করেছেন তিনি।

অথচ শুরুর দিকে তাকে টেস্ট স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে ভাবা হতো। টেস্ট অভিষেকের তিন বছরপর ওয়ানডে অভিষেক হয়েছে তাই। ওয়ানডেতে সবচেয়ে কম ইনিংস খেলে ২০০০, ৩০০০, ৪০০০, ৫০০০, ৬০০০ ও ৭০০০ রানের রেকর্ড তার দখলে। ওয়ানডের ওপেনারদের মধ্যে ভারতের রোহিত শর্মার পর তার এভারেজই সবচেয়ে বেশি।

এসব অর্জন হয়তো আরো পূর্ণতা পেতে পারতো; কিন্তু সবাইকে অবাক করে ১৫ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন অত্যন্ত ধর্মপ্রাণ ও ‘জেন্টলম্যান’ এই ক্রিকেটার।

ভারতীয় মুসলিম দম্পতির ঘরে জন্ম নেয়া আমলা বেড়ে উঠেছেন ডারবানে। দুই পুত্র সন্তানের জনক তিনি। তার বড় ভাই আহমদ আমলাও ছিলেন ক্রিকেটার। ১২৮টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে তার ছিল ১৩টি সেঞ্চুরি। দুই ভাই এক সাথে অনেকদিন খেলেছেন স্থানীয় দল কাওয়াজুলু নাটাল ডলফিনসের হয়ে।


আরো সংবাদ