১১ ডিসেম্বর ২০১৯

শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে পাকিস্তানের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ

প্রথমবারের মত এসিসি ইমার্জিং টিমস কাপের শিরোপা জয়ের লক্ষ্য শনিবার মাঠে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে পাকিস্তানের। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ৯টায়।

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সেমিফাইনালের টিকিট পায় বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে হংকংকে ৯ উইকেটে, ভারতকে ৬ উইকেটে ও নেপালকে ৮ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। ফলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠে শান্ত-সৌম্যরা।

ব্যাটসম্যান-বোলারদের দুর্দান্ত নৈপুন্যে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে উঠে বাংলাদেশ। ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে দারবিস রাসুলির সেঞ্চুরিতে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২২৮ রানের সংগ্রহ পায় আফগানিস্তান। রাসুলি ৭টি করে চার-ছক্কায় ১২৮ বলে ১১৪ রান করেন। বাংলাদেশের হাসান মাহমুদ ও সৌম্য সরকার ৩টি করে উইকেট নেন।

জবাবে জয়ের জন্য ২২৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ৬১ বল বাকী রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে বাংলাদেশ। সৌম্য সরকার ৬১, অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত ৫৯ ও আফিফ হোসেন অপরাজিত ৪৫ রান করেন। তাই দুর্দান্ত ফর্মে থেকেই ফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

ব্যাট হাতে টুর্নামেন্টে এখন অবধি সর্বোচ্চ রানের মালিক বাংলাদেশের শান্ত। ৪ ইনিংসে ৩টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ২৩৪ রান করেছেন স্বাগতিক অধিনায়ক। সেরা ফর্মে রয়েছেন সৌম্যও। ৪ ইনিংসে ৩টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ২২৯ রান করেছেন সৌম্য। দু’জনই আগের ম্যাচগুলোতে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে কাছাকাছি গিয়ে আটকে গেছেন। শান্ত’র সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান ৯৪ ও সৌম্যর অপরাজিত ৮৪ রানের ইনিংস ছিলো।

বল হাতে বাংলাদেশের হয়ে আলো ছড়িয়েছেন ডান-হাতি পেসার সুমন খান । ৪ ইনিংসে ১১ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

গ্রুপ পর্বে শতভাগ সাফল্য নিয়ে টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছে পাকিস্তানও। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৮ উইকেটে, শ্রীলংকাকে ৯০ রানে ও ওমানকে ১৪৭ রানের বড় ব্যবধানে হারায় পাকিস্তান। আর সেমিফাইনালে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে চিরপ্রতিন্দ্বন্দি ভারতকে ৩ রানে হারের লজ্জা দেয় পাকিস্তান। তাই ভারতকে হারানোর টাটকা স্বাদ নিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।


আরো সংবাদ