১১ ডিসেম্বর ২০১৯

হাসপাতালে লিটন-নাঈম

মাথায় বলের আঘাত পেয়ে কলকাতার একটি স্থানীয় হাসপাতালে স্ক্যান করাতে গিয়েছেন বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার লিটন দাস ও নাঈম হাসান।

কলকাতায় ভারতের বিপক্ষে শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া দিবা-রাত্রির টেস্টে বাউন্সারে মাথায় বলের আঘাত পান লিটন ও নাঈম। ম্যাচের প্রথম দিনের ২২তম ওভারের চতুর্থ বলে ভারতের পেসার ইশান্ত শর্মার বাউন্সারে মাথায় আঘাত পান লিটন। সাথে-সাথে আহত অবসর হয়ে মাঠ ছাড়েন লিটন। তখন ২৪ রানে অপরাজিত ছিলেন লিটন।

আর ২৩তম ওভারে ভারতের আরেক পেসার মোহাম্মদ শামির বাউন্সারে মাথায় আঘাত পান নাঈম। ঐ সময় শুন্য রানে ব্যাট করছিলেন নাইম। পরবর্তীতে মাঠের ভেতরই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ব্যাট করেন নাঈম। শেষ পর্যন্ত ৪টি চারে ২৮ বলে ১৯ রান করে আউট হন তিনি।

নিজেদের ইনিংস শেষে কলকাতার একটি হাসপাতালে স্ক্যান করাতে যান লিটন ও নাঈম। ফলে চলমান গোলাপি বলের টেস্টে লিটন ও নাইমের পরিবর্তে যথাক্রমে ‘কনকাশন সাব’ হিসেবে খেলতে নামেন স্পিন অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ ও বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

মিরাজ ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে ৮ রান করেন। আর নাইম নিজের ব্যাটিং ইনিংস শেষ করায় ব্যাট হাতে নামতে পারেননি তাইজুল। তবে ইতোমধ্যে ফিল্ডিং করতে নেমেছেন তাইজুল।

আইসিসির নিয়মনুযায়ী বল করতে পারবেন তাইজুল। কারণ বোলার নাঈমের পরিবর্তে খেলতে নেমেছেন তাইজুল। তবে মিরাজ বল করতে পারবেন না। কারন ব্যাটসম্যান লিটনের পরিবর্তে খেলতে নেমেছেন মিরাজ। আইসিসির নিয়মে লেখা আছে, ব্যাটসম্যানের পরিবর্তে নামলে ব্যাটিং ও বোলারের পরিবর্তে সুযোগ পেলে বোলিং করতে পারবেন।

সূত্র : বাসস


আরো সংবাদ