১৮ অক্টোবর ২০১৯
ক ম্বো ডি য়া র রূ প ক থা

তিন টেকোর গল্প

-

(গত দিনের পর)

তিন দিন তিন রাত পথ চলল তারা। দীর্ঘ পথচলায় অনেক কষ্ট। পা ব্যথা হয়ে যায়। তা হোক। শেষতক গন্তব্যে পৌঁছল তারা। টলটলে পানির পুকুর পেয়ে গেল সাধুর কথামতো। সাথে সাথেই ঝাঁপিয়ে পড়ল তিন টেকো। এক ডুব দিয়ে উঠে গেল ঝটপট। মাথায় হাত বুলোতে শুরু করল তিনজনই। সত্যিই তো। সাধুর কথা এক্কেবারে সত্যি। এক বর্ণ মিথ্যে নেই তাতে। তারা দেখল, সবার মাথাভর্তি চুল। ঘন চুল। কম বয়সে যেমন কালো ঘন চুল থাকে, ঠিক সে রকমই। আশ্চর্য ব্যাপার তো!
আনন্দের চোটে সাধুর সতর্কবাণীর কথা বেমালুম ভুলে গেল তারা। আনন্দে মশগুল হয়ে গেছে তিনজনই। আহা কী আনন্দ! মুক্তির কী শিহরণ! সবাই ইচ্ছেমতো ঝাঁপাঝাঁপি করল সেই পুকুরে। ডুবের পর ডুব দিলো। যে সরদার গোছের, সে অন্য দু’জনকে বলল,
চলো হে, আমরা ইচ্ছেমতো ডুব দিতে থাকি। যত বেশি ডুব দেবো, চুল তত বেশি পোক্ত হবে। ঘন হবে। শত্রু সমালোচকদের মুখে ছাই দেবো আমরা। (চলবে)

 


আরো সংবাদ

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা মামলার শুনানি ৪ নভেম্বর ডিএনসিসির জরিপ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে আটক ১ শিবচরে গণ-উন্নয়ন সমিতির কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জবি ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃত্বে মুত্তাকী-জাহিন তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? ‘দ্বীনকে বিজয়ী করতে সর্বক্ষেত্রে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে হবে’ বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি মোজাফফরের জামিন বাতিল জয়নুল আবেদীন, মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ তিনজনের জামিন শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ইউল্যাব স্কুলে আলোচনা জহুর-তনয় আশফাকের স্মরণসভাসিএনসির বিচারককে প্রত্যাহার দাবি আইনজীবী ফোরাম ও বার সম্পাদকের

সকল