ড্রোন ক্যামেরায় নতুন দ্বীপ। ছবি : ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে
ড্রোন ক্যামেরায় নতুন দ্বীপ। ছবি : ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে

বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের কাছে নতুন অর্ধচন্দ্রাকার দ্বীপ! বাড়ল রহস্য!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

পৃথিবীর অন্যতম আদিম ভূমি গন্ডোয়ানাল্যান্ড থেকে ছিঁড়ে বেরিয়ে এসে জম্বুদ্বীপের জন্ম। সে রকমই না জানি কত রহস্য লুকিয়ে আছে সাগরের তলায়! সত্যিই এই নীল গ্রহ আমাদের আরো কত কী উপহার দেবে তা এখনো অজানা।
পাঁচ মহাসমুদ্র। সাত মহাদেশ। সপ্তম আশ্চর্য। দশ দিক। এক চন্দ্র। পক্ষ দুই। অ্যালজেব্রার ভাষায় এ সবই কনস্ট্যান্ট। এই ‘ধ্রুব’ সত্যের তালিকায় কোনো বদল না হলেও, নতুন এক দ্বীপের জন্ম নিয়ে বিজ্ঞানীমহলে বেশ তোলপাড় শুরু হয়েছে। কিছু দিন আগেই ‘জিল্যান্ডিয়া’ নামে এক নতুন মহাদেশের খোঁজ পেয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। তবে এ বার সে রকম কিছু নয়, শিরোনাম হওয়ার অন্যতম কারণ, এটির অবস্থান বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের মাত্র দেড় শ' ফুট দূরত্বে।
অতলান্তিক মহাসাগরের উপর জেগে উঠেছে এক নতুন দ্বীপ। নর্থ ক্যারোলিনার কেপ পয়েন্টে একটি ‘শেল আইল্যান্ড’-এর খোঁজ পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। বারমুডা ট্রাঙ্গেলের খুব কাছে হওয়ায় গত এপ্রিল মাস থেকেই দ্বীপটি চোখে পড়েছিল পর্যটকদেরও। আর তখন থেকেই একটু একটু করে রোজ মাথা তুলছে দ্বীপটি।
প্রায় এক মাইল বিস্তৃত অর্ধচন্দ্রাকার এই দ্বীপের নামকরণ করা হয়েছে ‘শেলি আইল্যান্ড’। বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের বেশ কিছুটা আগে পর্যন্ত ভিড় জমানো পর্যটকদের, এই দ্বীপের কাছে যাওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, দ্বীপটি অত্যন্ত ভয়ঙ্কর। তার চারিদিকে মারাত্মক স্রোত রয়েছে। প্রচুর হাঙর ও স্টিং রে-র বসবাস ওই দ্বীপে। তা ছাড়া দ্বীপটি যেকোনো মুহূর্তে ডুবে যাওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।
বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল। সেই কবে থেকেই অতলান্তিক মহাসাগরের এই বিশেষ অঞ্চল নিয়ে মানুষের নানা রহস্য। গল্পে, উপন্যাসে এই অঞ্চলটির বিশেষ নাম ‘শয়তানের ত্রিভূজ’। বলা হয়, বারমুডা ট্র্যাঙ্গেলের কাছে গিয়ে নাকি বহু জাহাজ ও উড়োজাহাজ নিখোঁজ হয়ে গেছে। বহু চেষ্টা করেও সেগুলির কোনো খোঁজ মেলেনি। এই সব অন্তর্ধান-রহস্যের জট আজও খোলেনি। প্রাকৃতিক দুর্যোগ, দুর্ঘটনা, নাকি অলৌকিকতা, তারও কোনো প্রমাণ মেলেনি।

বারমুডা ট্র্যাঙ্গেল। পশ্চিম অতলান্তিকের ছবি
এ বার সেই রহস্যের মধ্যেই ‘শেলি আইল্যান্ড’-এর জন্ম। অনেকেই বলছেন, নতুন দ্বীপের জন্ম এই রহস্য আরো বাড়িয়েছে। যদিও বিশেষজ্ঞরা ‘শেলি আইল্যান্ড’-এর ভবিষ্যৎ নিয়ে কিছু জানাতে পারেননি। এর আয়ু কত দিন, এর কত অংশই বা পানির তলায়— কোনও বিষয়েই নিশ্চিত কোনো উত্তর নেই তাদের কাছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, যে ভাবে হঠাৎ জেগে উঠেছে দ্বীপটি, সে ভাবেই এক দিন চোখের নিমেষে মিলিয়েও যেতে পারে ‘শেলি আইল্যান্ড’!
সূত্র : ওয়েবসাইট

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.