বিবাহ কোটা

সুদিপ্ত কুমার নাগ

সরোয়ারের জীবনটা হলো কোটাময়। সে এই জীবনে যা কিছু অর্জন করেছে, সবকিছু কোটার মাধ্যমে। এই কোটা বলতে সাধারণ টিফিন বাটি না। এটা হলো এমন একটা জিনিস যার মাধ্যমে যোগ্যতা না থাকলেও যেটা চাওয়া হয়, সেটা পাওয়া যায়।
এবার তাহলে প্রথম থেকেই আসি অর্থাৎ স্কুলে ভর্তি হওয়ার থেকে। সরোয়ার এক বিশেষ কোটার জন্য নামীদামি স্কুলে ভর্তি হলো। কাস ফাইভে বৃত্তি পরীায় যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও সেই কোটার কারণে সরোয়ার বৃত্তি পেল। কাস এইটেও একই ঘটনা ঘটল। মাধ্যমিক পাস করার পর উচ্চমাধ্যমিকে একটা ভালো নামকরা কলেজে সে ভর্তি হলো। এই কলেজেও সে ওই বিশেষ কোটার মাধ্যমে ভর্তি হলো। সরোয়ার উচ্চমাধ্যমিক পাস করার পর এই বিশেষ কোটার সাহায্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলো। কিন্তু এই বিশেষ কোটার সাহায্যে সে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো মেয়েকে পটাতে পারল না। সে ভাবল, মেয়েরা চাকরি-বাকরি করা প্রতিষ্ঠিত ছেলে পছন্দ করে। এ জন্য সে আর মেয়ে পটানোর দিকে মন দিলো না। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করার পর সরোয়ার সেই বিশেষ কোটা দ্বারা নামকরা উচ্চপদস্থ সরকারি চাকরি পেয়ে গেল।
চাকরি পাওয়ার পর এবার সে বিয়ের জন্য মেয়ে খুঁজতে নামল। কিন্তু কোনো মেয়েই সরোয়ারকে বিয়ে করতে রাজি হলো না। এবার সে বিশেষ এক ঘটকের শরণাপন্ন হলো। বিয়ের জন্য মেয়ে দেখতে সরোয়ার ঘটক সাহেবের সাথে মেয়ের বাড়িতে গেল। মেয়ে সরাসরি সরোয়ারকে জিজ্ঞেস করল যে, ছেলের যোগ্যতা কী? সরোয়ার সেই প্রশ্নের উত্তরে বলল, আমার এক বিশেষ কোটা আছে, যেটা দ্বারা আমি স্কুলে ভর্তি হওয়া থেকে এই চাকরি পর্যন্ত সব পেয়েছি। মেয়েটি বলল, আপনি কোটা দ্বারা লেখাপড়া আর চাকরি পেলেও কোনো মেয়েকে ভালোবাসতে পারবেন না। অতএব আপনাকে বিয়ে করব না।
এভাবে সরোয়ার যতবারই মেয়ে দেখতে যায়, ততবারই অপমান হয়ে ফিরে আসে। সরোয়ার এখন আর বিয়ের জন্য মেয়ে খোঁজে না। অনেক দিন পর সরোয়ার একা একা ঢাকার রাস্তায় হাঁটছে আর ভাবছে, বিশেষ কোটা দ্বারা স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আর চাকরি হলেও কখনো বিয়ে করা যায় না। এ েেত্র অবশ্যই যোগ্যতা থাকতে হয়। সরোয়ার এখন এক নতুন কোটা খুঁজছে। সেটি হলো বিবাহ কোটা। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলোÑ এ দেশে সরোয়ারের মতো বিশেষ কোটাধারীদের জন্য এখনো বিবাহ কোটা চালু হয়নি!

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.