এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ

শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড, সে শিক্ষাব্যবস্থার রূপকার ও কারিগর হলেন শিক্ষকেরা। বেসরকারি শিক্ষকদের দ্বারা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাব্যবস্থার প্রায় ৯০ ভাগ পরিচালিত হয়। সে শিক্ষকসমাজ আজ সবচেয়ে বেশি অবহেলিত। তারাই চরম বৈষম্যের শিকার। সরকারি-বেসরকারি বিভাজন শিক্ষাব্যবস্থার মানোন্নয়নের পথে মারাত্মক বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে সব বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে শিক্ষকদের আর্থিক সমতা বিধান করে সামাজিক মর্যাদার আসনে তাদের অধিষ্ঠিত করা একান্ত জরুরি। আমরা মনে করি, অর্থ কোনো সমস্যা নয়, প্রয়োজন সরকারের মানসিকতার পরিবর্তন এবং আমলাতান্ত্রিক জটিলতা নিরসন। যুগ যুগ ধরে অবহেলিত শিক্ষকসমাজের প্রাণের দাবি, চাকরি জাতীয়করণ করে শিক্ষাব্যবস্থার সব সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নেবে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছিÑ জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ এ বিষয়টিকে আর ঝুলিয়ে না রেখে লাখ লাখ শিক্ষকের আর্থিক নিরাপত্তা, সামাজিক মর্যাদা এবং সর্বোপরি অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার বিষয় বিবেচনা করুন। মহান আল্লাহ আপনাদের মঙ্গল করুন।
এ বি এম কামরুল ইসলাম
প্রধান শিক্ষক
ফৌজদারহাট কলেজিয়েট স্কুল
ক্যাডেট কলেজ, চট্টগ্রাম।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.