ফ লো আ প

ভাঙনকবলিত স্কুলটি পেল ২ লাখ টাকা

আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর (মানিকগঞ্জ)

দৈনিক নয়া দিগন্তের অবকাশ পাতায় ‘পদ্মার গর্ভে কি হারিয়ে যাবে শিশুদের স্কুলটি’? শিরোনামে গত ২৩ জুলাই একটি সচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে শেয়ার করার ফলে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হয় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম জাহিদের। ওই দিন বিকেলেই তিনি শিবালয় উপজেলার পদ্মার পাড়ে অবস্থিত কুষ্টিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে যান। পরিদর্শন শেষে পদ্মার ভাঙন থেকে রক্ষার জন্য আরুয়া ইউনিয়নের কুষ্টিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির কাছে দুই লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন এস এম জাহিদ। 

এ সময় শিবালয় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউর রহমান খান জানু, সহসভাপতি কাজী ফয়জুল হক জ্যোতি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী আহসান মিঠু, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মো: মজিবর রহমান খান ও আমজাদ হোসেন মাস্টার বক্তব্য রাখেন।

স্কুল রক্ষায় অনুদানের অর্থ পেয়ে আনন্দিত শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। প্রিয় বিদ্যালয় রক্ষার্থে এমন মহতী উদ্যোগে বর্তমান ও সাবেক অনেক শিক্ষার্থীরই বেরিয়ে আসে আনন্দাশ্রু। এরপর উপজেলার রূপসা এলাকায় এক পথসভায় রূপসা কবরস্থানের উন্নয়ন কাজের জন্য এক লাখ টাকা অনুদান প্রদানের ঘোষণা দেন তিনি। 

এস এম জাহিদ বলেন, নদীভাঙন প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলেও চেষ্টা করলে তা রোধ করা সম্ভব। আমি আপনাদের মতোই ভাঙনকবলিত এলাকার মানুষ। তাই সংবাদপত্রে প্রকাশিত এই স্কুলের নদীভাঙনের নিউজ ‘ফেসবুকের’ মাধ্যমে দেখে শিবালয়ে ভালোবাসার টানে এখানে এসেছি। আজকের শিশুরা আমাদের আগামী দিনের স্বপ্ন। এরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাই এদেরকে লালন করতে হবে। তাদেরকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে মানুষের মতো মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাই হচ্ছে মহত্বের কাজ।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.