চাঁদা না দেয়ায়

আগৈলঝাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১৪ লাখ টাকার সংস্কারকাজ বন্ধ

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) সংবাদদাতা

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় চাঁদা না দেয়ায় হাসপাতালের সংস্কারকাজ বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় বখাটেরা। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষসহ স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। 

হাসপাতাল ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৫০ শয্যা হাসপাতালের প্রশিক্ষণ ভবন, রাস্তা নির্মাণ, পানি ও বিদ্যুৎ লাইন সংস্কারের জন্য চলতি বছরের স্বাস্থ্য অধিদফতরের ফান্ড থেকে ১৪ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়। পৃথকভাবে ওই তিনটি কাজের টেন্ডার আহ্বান করে বরিশাল স্বাস্থ্য অধিদফতর। টেন্ডারে চার লাখ ৫০ হাজার টাকায় হাসপাতালের প্রশিক্ষণ হল রুম সংস্কার কার্যাদেশ পায় গৌরনদী উপজেলার ঠিকাদার আবুল মৃধার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সায়হাম এন্টারপ্রাইজ। জুলাই মাসের শেষ দিকে ঠিকাদার কাজ শুরু করার দুই দিন পর স্থানীয় বখাটেরা ওই ঠিকাদারের কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে কাজ করা যাবে না বলে হুমকি দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয় তারা। পরে ঠিকাদার ভয়ে কাজ বন্ধ রেখে চলে যান। চাঁদা দাবির ঘটনা জানাজানি হলে পানি ও বিদ্যুৎ লাইন সংস্কারের কাজ পাওয়া বরিশালের ঠিকাদার ফয়সাল ভয়ে কাজ শুরু করেননি।

এ ব্যাপারে ঠিকাদার সায়হাম এন্টারপ্রাইজের মালিক আবুল মৃধা জানান, স্থানীয় কয়েকজনের কারণে কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। বরিশাল স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী প্রকৌশলী আলতাফ হোসেন জানান, নিজ এলাকার উন্নয়নকাজ করতে এসে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। কিছু লোকজন সমস্যা করায় কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে।

উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবারপরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আলতাফ হোসেন হাসপাতালের উন্নয়নকাজ বন্ধ থাকার সত্যতা স্বীকার করে বলেন কাজ বন্ধের ব্যাপারে ঠিকাদারকে জিজ্ঞাসা করলে ঠিকাদার তাকে জানিয়েছেন যে, স্থানীয় কতিপয় লোকজন টাকা চাওয়ার কারণে কাজ বন্ধ রয়েছে।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.