রবি দৃষ্টি বিতর্ক প্রতিযোগতিার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন  :  নয়া দিগন্ত
রবি দৃষ্টি বিতর্ক প্রতিযোগতিার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন : নয়া দিগন্ত

চট্টগ্রামে শুরু হলো রবি দৃষ্টি বিতর্ক প্রতিযোগিতা

অংশ নিচ্ছে ৯২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

পাহাড় নদী ফুলের দেশ, চট্টগ্রাম মানে বাংলাদেশ। জলাবদ্ধতা, পাহাড়ধস কিংবা বিলবোর্ডের নগরী চট্টগ্রাম নয়, চট্টগ্রাম হচ্ছে বীরের শহর। ‘আশার চট্টগ্রাম আগামীর চট্টগ্রাম নিয়ে’ এমনই একটি চমকপ্রদ ডকুমেন্টারির প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামে শুরু হলো বাংলাদেশের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ বিতর্ক প্রতিযোগিতা রবি দৃষ্টি ডিবেট চ্যাম্পিয়নশিপ। এবারে এ প্রতিযোগিতা চট্টগ্রামের সাংগঠনিক বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২৫ বছর।
গতকাল সকালে চট্টগ্রামের থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন দৈনিক পূর্বকোণের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, রবির কমিউনিকেশনস অ্যান্ড করপোরেট রেসপন্সিবিলিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবীর, সানশাইন গ্রামার স্কুলের অধ্যক্ষ সাফিয়া গাজী রহমান ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের শিক্ষা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি নজমুল হক ডিউক।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দৃষ্টি চট্টগ্রামের সভাপতি মাসুদ বকুল। বক্তব্য রাখেনÑ দৃষ্টি চট্টগ্রামের সিনিয়র সহসভাপতি সাইফ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সাবের শাহ, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুদ্দিন মুন্না এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ও প্রতিযোগিতার সমন্বয়কারী কাজী আরফাত।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনকালে বাংলাদেশের প্রকৃতি, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক নানা ক্লিপস প্রদর্শন করা হয়। বিশ্বের বরেণ্য কয়েকজন নেতার বক্তব্যে উল্লেখযোগ্য অংশবিশেষ ভিডিও ক্লিপসের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সামনে তুলা ধরা হয়।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, শিক্ষা ও সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে যারা চট্টগ্রামকে বাংলাদেশ ও পুরো বিশ্বে পরিচয় করাচ্ছে, তাদের মধ্যে দৃষ্টি চট্টগ্রাম অন্যতম। চট্টগ্রামের নানাবিধ সমস্যা সমাধানকল্পে তিনি নাগরিকদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সিটি করপোরেশনকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, প্রকৃতির বিরূপ আচরণে আজ আমরা ভুক্তভোগী কিন্তু উন্নত চিন্তা ও দক্ষ পরিকল্পনার মাধ্যমে সমস্যাগুলোর সমাধান করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি দৈনিক পূর্বকোণের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক জসিম উদ্দীন বলেন দৃষ্টি প্রতিনিয়ত তাদের কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে সৃজনশীল তরুণ উদ্যোক্তা ও নেতা তৈরি করছে। আর এ ধরনের প্রতিযোগিতা ও বিতর্ক চর্চার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে।
সানশাইন গ্রামার স্কুলের অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ সাফিয়া গাজী রহমান বলেন, সবাই মিলে যখন একসাথে কাজ করব খুব বেশি সময় লাগবে না একসাথে এগিয়ে যেতে।
রবির কমিউনিকেশনস অ্যান্ড করপোরেট রেসপন্সিবিলিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবীর বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ ও সমৃদ্ধ পৃথিবী গড়ে উঠবে এই স্বপ্নবাজ ও দেশপ্রেমিক তরুণদের মাধ্যমে। আর এই প্রজন্মকে গড়ে তোলার দায়িত্ব আমাদের।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পরপরই ১০ মিনিট স্কুলের সহযোগিতায় দু’টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এটি পরিচালনা করেন আইমান সাদিক। এতে ৪১০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।
স্কুল বিতর্কের ২৫তম এই আয়োজনে চট্টগ্রামের ৪২টি স্কুলের ৪৮টি, ১৪তম বিশ্ববিদ্যালয় বিতর্কে সারা দেশের ২৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩২টি এবং প্রথম কলেজ ইংরেজি বিতর্কে ১২টি কলেজসহ ৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৯২টি বিতর্ক দল অংশগ্রহণ করছে। ১৪ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠান আগামী ২৬ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে। বিজ্ঞপ্তি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.