নারায়ণগঞ্জ শহরে এমপি শামীম ওসমানের নেতৃত্বে শোকর্যালি :নয়া দিগন্ত
নারায়ণগঞ্জ শহরে এমপি শামীম ওসমানের নেতৃত্বে শোকর্যালি :নয়া দিগন্ত
শহরে দিনের বেলায় ট্রাক প্রবেশ নিষেধ

নন ইউরিয়া ভর্তুকি সারের জাহাজ খালাসের অপেক্ষায় : বিপাকে আমদানিকারকেরা

বন্দর (নারায়ণগঞ্জ) থেকে সংবাদাতা

শহরের নিতাইগঞ্জ এলাকা যানজটমুক্ত রাখতে দিনের বেলায় পণ্য পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ট্রাকের লোড-আনলোড করা নিষেধ থাকলেও স্থানীয় প্রশাসন পুরো শহরের মধ্যে দিনের বেলায় ট্রাক চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করায় বিপাকে পড়েছেন শহরের ৫ নম্বর ঘাট (পোর্ট) ব্যবহারকারী নন ইউরিয়া সার আমদানিকারকরা। আগামী কৃষি মওসুমে সরকারি মাসিক বরাদ্দের জন্য বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানিকৃত ডিএপি,এমওপি, টিএসপিসহ রাসায়নিক সার ইতোমধ্যে শহরের ৫ নম্বর ঘাট পোর্টে আসা শুরু হয়েছে। বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জেলায় সঠিক সময়ে কৃষকদের মধ্যে দ্রুত সার পৌঁছানের উদ্দেশ্যে চারটি পয়েন্ট নির্বাচিত করেছে সরকার। তার মধ্যে ঢাকা ও সিলেট বিভাগের জন্য নারায়ণগঞ্জ পোর্ট অন্যতম। আগামী কৃষি মওসুমে সরকার নির্ধারিত সারা দেশের চাহিদার ৩০ শতাংশ নন ইউরিয়া সার নারায়ণগঞ্জে মজুদ করতে হবে। আমদানিকারকরা সরকারের মাসিক বরাদ্দ শুরু হওয়ার আগে ঢাকা ও সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলার জন্য বরাদ্দকৃত নন ইউরিয়া সার বিদেশ থেকে আমদানি করে কৃষকদের মধ্যে সঠিক সময়ে দ্রুত পৌঁছানোর লক্ষ্যে শহরের ৫ নম্বর পোর্ট দিয়ে আনলোড করে শহরের আশপাশে মজুদ রাখে। পোর্ট এরিয়ায় গুদাম বা খালি জায়গা না থাকায় পোর্ট এরিয়ার বাইরে এসব সার মজুদ রাখা হয়। আপদকালীন কৃষকের মধ্যে দ্রুত এসব সার সরবরাহের জন্য খানপুর বিআইডব্লিউটির গুদাম এলাকায় মজুদ রাখা হয়। ৫ নম্বর পোর্ট থেকে জাহাজ থেকে ট্রাকে খানপুর বিআইডব্লিউটির গুদাম এলাকায় মজুদ রাখা হয়। সম্প্রতি জেলা প্রশাসন নিতাইগঞ্জ ট্রাক স্ট্যান্ড এলাকায় দিনের বেলা পরিবহনে পণ্য লোড-আনলোডের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার পরদিন থেকেই পুরো শহর এলাকায় দিনের বেলায় পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ বন্ধ করে দেয়। ফলে আসন্ন মওসুমে নারায়ণগঞ্জে সার মজুদ রাখা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। 

নন ইউরিয়া সার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মানামা গ্রুপের নারায়ণগঞ্জ পয়েন্টের ব্যবস্থাপক আরজু ইসলাম এ প্রসঙ্গে বলেন, খানপুর থেকে কালির বাজারের কোল ঘেঁষে ৫ নম্বর পোর্টের অবস্থান। মাত্র এক কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে ৫ নম্বর পোর্টে থেকে জাহাজ থেকে সার আনলোড করে লোকাল ট্রাকে খানপুর বিআইডব্লিউ গুদাম এলাকায় সরকার নির্ধারিত ভর্তুকির সার মজুদ করতে না পারলে আগামী মওসুমে উল্লিখিত বেল্টের কৃষকরা চরম সার সঙ্কটে পড়বে। 

প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার কৃষক বাঁচাও দেশ বাঁচাও এ সেøাগান বাস্তবায়ন অসম্ভব হয়ে পড়বে। সৃষ্ট এ সমস্যার সমাধানে অবিলম্বে জেলা প্রশাসন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও নাসিকের মেয়রের জরুরি হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। 

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স মো: রবিউল ইসলামের নারায়ণগঞ্জ পয়েন্টের ইনচার্জ মো: হারুন জানান, ইতোমধ্যে আগামী মওসুমের নারায়ণগঞ্জ বেল্টের ভর্তুকির সার ৫ নম্বর পোর্টে জাহাজে এসে পৌঁছেছে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.