বিশ্বের সাথে একক তারিখে রোজা, ঈদ পালনের দাবি সেমিনারে

নিজস্ব প্রতিবেদক

হিজরি মাসগুলোর গণনা শুরু করার ক্ষেত্রে নতুন চাঁদ দৃশ্যমান হওয়ার ভৌগোলিক ভিন্নতা গৃহীত নয়। ফলে বিশ্বের যেকোনো স্থানে সর্বপ্রথম নতুন চাঁদ দৃশ্যমান হওয়ার দ্বারাই চান্দ্রমাসের ১ তারিখ নির্ধারিত হবে। সে অনুযায়ী অন্যান্য দেশের সাথে বাংলাদেশে একই চান্দ্র তারিখে, একই বারে রোজা, ঈদ কোরবানিসহ চাঁদের তারিখ নির্ভর সব ইবাদত পালন করাই শরয়ী বিধান। এমনটাই দাবি করেছেন বিশিষ্টজনেরা।
গতকাল কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে ঢাকায় বিশ্বের সাথে বাংলাদেশে একক চান্দ্র তারিখে ও একই বারে রোজা, ঈদ, কোরবানি ইত্যাদি পালন করার শরয়ী বিধান ও যৌক্তিকতাবিষয়ক সেমিনারে এ দাবি জানানো হয়।
সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুন এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন লায়ন এম এ আউয়াল এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাওলানা মুফতি ড. এ কে এম মাহবুবুর রহমান। স্বাগত বক্তৃতা দেন পরমাণু বিজ্ঞানী এম শমশের আলী। এতে লিখিত প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মাওলানা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন ওআইসি ফিকহ্ একাডেমির বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাওলানা মুফতি ড. সায়্যিদ আব্দুল্লাহ আল মারুফ সেমিনারের আয়োজন করে চান্দ্রমাসের সঠিক তারিখ বাস্তবায়ন জাতীয় কমিটি।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.