রংপুর তামাক চাষি ও ব্যবসায়ী সমিতির সংবাদ সম্মেলন

অর্থমন্ত্রী কিসের বিনিময়ে সিগারেটের পক্ষ নিয়েছেন তার তদন্ত প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বিরুদ্ধে ব্রিটিশ- আমেরিকান কোম্পানির পক্ষে একতরফা সমর্থন দেয়ার অভিযোগ করেছে বৃহত্তর রংপুর তামাক চাষি ও ব্যবসায়ী সমিতি। গতকাল জাতীয় প্রেস কাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুম ফকির বলেন, অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য আতঙ্কজনক। বিড়ি-সিগারেট দু’টিই স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। কিন্তু সিগারেট থাকবে আর বিড়ি থাকবে না তা হতে পারে না। অর্থমন্ত্রী কী কারণে বিড়ি শিল্প ধ্বংস করে ব্রিটিশ-আমেরিকান টোব্যাকোর সিগারেটের পক্ষে সাফাই গাইছেন তা আমাদের কাছে সন্দেহজনক। জানি না কিসের বিনিময়ে তিনি বিড়ি বন্ধের কথা বলছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা প্রয়োজন।
সমিতির সভাপতি মো: হামিদুল হক বলেন, অর্থমন্ত্রী বিড়ি শিল্প বন্ধে বাজেটে ১৩০ শতাংশ শুল্ক প্রস্তাব করেছিলেন। কিন্তু পরে সরকার দুই বছরের জন্য এটি স্থগিত করেছে। অথচ গত ৩০ জুলাই অর্থমন্ত্রী বহুজাতিক সিগারেট কোম্পানির সাথে বৈঠক শেষে বলেছেন, বিড়ি আর থাকবে না। সে ব্যাপারে পলিসি তৈরি করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান। অর্থমন্ত্রী এভাবে সিগারেট কোম্পানিকে সুবিধা দিতে তাদের হয়ে কাজ করছেন। আমরা তার এ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
হামিদুল হক বলেন, নদী অববাহিকায় অবস্থিত উত্তর বঙ্গের জেলাগুলোর বেশির ভাগ জমিই বালুকণাযুক্ত। এসব জমিতে তামাক চাষ ছাড়া অন্য কোনো ফসল হয় না। এ কারণে বিড়ি শিল্প বন্ধ হয়ে গেলে এ অঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ মানুষ বেকার হয়ে পথে বসবে। তখন আন্দোলন ছাড়া কোনো পথ থাকবে না। অর্থমন্ত্রীর বিড়ি শিল্পবিরোধী কথাবার্তা অব্যাহত থাকলে তাকে রংপুর অঞ্চলে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হবে এবং তার পদত্যাগের দাবিতে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, সমিতির সহসভাপতি শফিকুল ইসলাম তুহিন, সদস্য রুবেল মিয়া প্রমুখ।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.