মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও বাসভবন ছাড়েননি শাবি ভিসি

শাবি সংবাদদাতা

কার্যকাল শেষ হওয়ার ১৫ দিন পার হওয়ার পরও অবৈধভাবে ভিসি ভবনে বসবাস করছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভুঁইয়া। শনিবার রাতে গণমাধ্যমে দেয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ অভিযোগ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতি। সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুল আলম ও সাধারণ স¤পাদক মো. মহিবুল আলম সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, গত ২৭ জুলাই মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরও এতদিন যাবত ভিসি ভবনে সপরিবারে বসবাস করে অনৈতিক সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করছেন অধ্যাপক আমিনুল হক ভুঁইয়া। আবার তিনি বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করায় সেখান থেকেও সুযোগ সুবিধা নিচ্ছেন।

শেষ কার্য দিবসে তিনি এক শিক্ষকের সাথে দুর্ব্যবহার করেছেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়। এতে বলা হয়, শেষ কর্মদিবসে এক শিক্ষক ছুটির অনুমোদন চাইলে অধ্যাপক আমিনুল হক ভুঁইয়া তার সাথে দুর্ব্যবহার করেন।

এসময় ওই শিক্ষকের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি চাইলে তোমাকে ছুটি দিতে পারি কিন্তু দিব না। এর ফলে ভুক্তভোগী শিক্ষক শাহজাহান মিয়ার পিএইচডি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। মেয়াদ শেষ হয়ে যাবার ১৫ দিন পরও ভিসির বাসভবনে অবস্থান করার বিষয়ে শিক্ষক সমিতি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এবং কোষাধ্যক্ষের সাথে যোগাযোগ করলেও তারা কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। এ নিয়ে শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়। এছাড়া গত ২৭ তারিখের পর থেকে ভিসি না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম, শিক্ষকদের শিক্ষাছুটি, বিদেশ গমন এবং ছাত্র-ছাত্রীদের সার্টিফিকেট প্রদানসহ যাবতীয় কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে বলেও জানান তারা।

এদিকে সিন্ডিকেটের অনুমোদন ছাড়া এভাবে ভিসি ভবনে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে নেই বলে জানিয়েছেন রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেন। তিনি বলেন, এর আগে কোনো ভিসি এভাবে অবস্থান করেননি। এ ব্যাপারে সদ্য সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. আমিনুল হক ভুঁইয়ার সাথে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক ড. মো. আমিনুল হক ভুঁইয়া ২০১৩ সালের ২৮ জুলাই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯ম ভিসি হিসেবে যোগদান করেন। এ বছরের ২৭ জুলাই তার মেয়াদ শেষ হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.