ঈদে পলাশ মাহবুবের টেলিফিল্ম ও নাটক

নয়া দিগন্ত অনলাইন

আসছে ঈদের জন্য একটি টেলিফিল্ম ও একটি নাটক লিখেছেন জনপ্রিয় লেখক, নাট্যকার পলাশ মাহবুব। নাটক দুটি হচ্ছে ‘লাভটোমিটার’ এবং ‘বখতিয়ারের বাইক’। দুটি নাটক-ই পরিচালনা করেছেন এ সময়ের জনপ্রিয় নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ।

নাটক দুটি সম্পর্কে নাট্যকার পলাশ মাহবুব বলেন, নতুন দুটি নাটকের গল্পই গতানুগতিকতার বাইরে। গল্পে দর্শকরা ভিন্ন স্বাদ খুঁজে পাবেন। আমরা বরাবরই নাটকে গল্প বলতে চাই। এবারও তার ব্যতিক্রম হবে না।
পলাশ মাহবুব আরও জানান, এর বাইরে আমার আরও দুটি পুরনো কাজ ঈদ উপলক্ষে দুটি চ্যানেলে পুনঃপ্রচার হবে। ‘জর্দা জামাল’ নাটকটি দেখানো হবে মাছরাঙা টেলিভিশনে এবং বৈশাখী টেলিভিশনে প্রচারিত হবে ৫ পর্বের ধারাবাহিক ‘হাঁটাবাবা রিটার্নস’।
লাভটোমিটার টেলিফিল্মের গল্পে একজন বিজ্ঞানীকে দেখা যাবে যিনি কিনা ‘লাভটোমিটার’ নামের একটি যন্ত্র অবিষ্কার করেছেন, যেই যন্ত্র মানুষের মনের সত্যিকারের কথা বুঝতে পারে।

লাভটোমিটার আবিষ্কারের পর বিজ্ঞানী জাহিদ হাসান বুঝতে শুরু করেন তার আশপাশের মানুষের মনের কথা এবং প্রতিনিয়ত বিস্মিত হতে থাকেন। মানুষের মনের কথা আর মুখের কথায় এত বৈপরীত্য! মন আর মুখে এত এত ফারাক! প্রতি পদে পদে ধাক্কা খেতে থাকেন তিনি। এগিয়ে যায় নাটকের গল্প . . .।
এই নাটকে ব্যতিক্রমি বিজ্ঞানীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ হাসান। নাটকে আরও অভিনয় করেছেন নাদিয়া আহমেদ, আশরাফুল আশীষ, শহীদুল্লাহ সবুজ, এমিলিসহ আরও অনেকে। ‘লাভটোমিটার’ প্রচারিত হবে ঈদের চতুর্থ দিন রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে আরটিভিতে।
অন্যদিকে ‘বখতিয়ারের বাইক’ নাটকের গল্পে দেখা যাবে বখতিয়ার নামের এক গ্রামের যুবককে, যে কিনা নিজের হোন্ডায় করে গ্রামের অসুস্থ মানুষকে প্রতিদিন হাসপাতালে নিয়ে যায়। যথাসময়ে হাসপাতালে নিয়ে বহু মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে সে।

নিজের কাজ ফেলে অন্যের সেবা করায় গ্রামে বখতিয়ারের জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে দিন দিন। এ নিয়ে গ্রামের চেয়ারম্যানের সাথে বাড়তে থাকে তার দূরত্ব। তিনি বখতিয়ারকে থামাতে চান। অবলম্বন করতে থাকেন নানা ছলচাতুরীর। এগিয়ে যায় নাটকের গল্প . . .।
‘বখতিয়ারের বাইক’ নাটকে অভিনয় করেছেন এফ এস নাইম, সোহানা সাবা, শহীদুল্লাহ সবুজ, হিন্দোল রায়সহ আর অনেকে। নাটকটি প্রচারিত হবে ঈদের ৩য় দিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে মাছরাঙা টেলিভিশনে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.