মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিকভাবে চাপ প্রয়োগের আহবান সিভিল রাইটস সোসাইটির

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সার্বিকভাবে সুব্যবস্থার পাশাপাশি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিকভাবে মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগের দাবি জানিয়েছে মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ সিভিল রাইটস সোসাইটি।

আজ শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মিয়ানমারে মানবিক বিপর্যয় রোধে জাতিসংঘের জরুরি হস্তক্ষেপের দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধন ও সমাবেশে সংগঠনটি এ দাবি জানায়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, মিয়ানমারে আজ মানবতা ও মানবাধিকার ভুলণ্ঠিত। তারপরও শান্তিতে নোবেল বিজয়ী অং সান সু চির মধ্যে বিন্দুমাত্র অনুশোচনাবোধ জাগ্রত হয়নি। যিনি শান্তিতে নোবেল পেলেন তার দেশেই আজ অশান্তির দাবানল দাউ দাউ করে জ্বলছে। রোহিঙ্গাদের অধিকার দেয়া হয়নি। তাদের নাগরিকত্ব না দিয়ে আজ অন্য দেশে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। নিরীহ শিশু ও নারীদের নির্মমভাবে হত্যা করা হচ্ছে। অবিলম্বে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিকভাবে মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে হবে।

বাংলাদেশ সিভিল রাইটস সোসাইটির চেয়ারম্যান জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

সাংবাদিক দরবেশ মো. নিজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে আরো বক্তব্য দেন বিএফইউজের সাবেক মহাসচিব এম এ আজিজ, বিএফইউজের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, জাতীয় স্মরণ মঞ্চের আহবায়ক প্রকৌশলী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান দেওয়ান মানিক, বাংলাদেশ মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ পরিষদের নির্বাহী পরিচালক তালুকদার মনিরুজ্জামান মনির, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম রমোস্তফা ভুঁইয়া, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ জার্নালিস্ট অর্গানাইজেশনের মহাসচিব মোঃ মহসীন, মানবাধিকার সংগঠন ইডাফ’র চেয়ারম্যান মোজাহারুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, দেশে যদি গণতান্ত্রিক সরকার থাকতো তাহলে এত সমস্যা তৈরি হত না। দেশ আজ বহুমুখী সংকটে নিমজ্জিত। অগণতান্ত্রিক সরকারের কাছে যতই মানবতার কথা, সত্য কথা বলা হোক না কেন তাদের কানে ঢুকবে না। সরকারের কূটনৈতিক ব্যর্থতার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কি করছে, তা বোধগোম্য নয়। ভারতের সাথে সরকারের সুসম্পর্ক রয়েছে। সেটাও কাজে লাগাতে পারে। চীনের সাথে সাবমেরিন চুক্তি করেছে সরকার। যদিও সাবমেরিন দেশের কোনো কাজে আসছে না। তারপরও রোহিঙ্গা শরনার্থী সমস্যা সমাধানে চীনের কাছে গিয়ে বলতে পারলে বেশি সুফল পাওয়া যেতে পারে।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.