মাছের রকমারি : রান্না বান্না

মোস্তারিনা পারভীন (রুনি)

নারকেল কই
উপকরণ : কই মাছ ১ কেজি, নারকেলের দুধ ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া ২ চা চামচ, টক দই আধা কাপ, কাঁচা মরিচ ফালি ও ৮-১০ টা, রান্নার জন্য সাদা তেল পরিমাণমতো, লাল মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালী : কই মাছগুলো কেটে ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর মাছের গায়ে ছুরি দিয়ে তিনটি দাগ কেটে নিন। হালকা হলুদ, লবণ ও আদাবাটা মেখে মাছগুলোকে তেলে হালকা করে ভেজে নিন। ভাজা হলে পেঁয়াজ কুচি, বাদামি করে ভেজে তাতে একে একে সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। মসলা থেকে তেল বেরিয়ে এলে তাতে ভাজা মাছগুলো দিয়ে ভালো করে কষিয়ে সামান্য গরম পানি দিন। ১০ মিনিট হালকা আঁচে ঢেকে রেখে আস্ত কাঁচা মরিচ দিয়ে নামিয়ে নিন।

চিংড়ি ভুনা
উপকরণ : চিংড়ি ৬০০ গ্রাম (খোসা ছাড়ানো, পেঁয়াজ ৮-১০টি মাঝারি মাপের, কাঁচা মরিচ কুচি ২-৩টি, লেবুর রস ১চা চামচ, আদা ও রসুন বাটা ১চা চামচ, মিষ্টি দই ২ চা চামচ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, চিনি ও লবণ স্বাদমতো, সাদা তেল আধা কাপ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ।
প্রস্তুত প্রণালী : মাছ, লেবুর রস ও লবণ মেখে ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ ভেজে নিন। পেঁয়াজ ভাজা হয়ে এলে লবণ, আদা ও রসুনবাটা দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়–ন। তারপর টমেটো কুচি, হলুদ গুঁড়া, জিরা দিয়ে কষাতে হবে। তারপর মাছ দিয়ে কষান। দই দিয়ে ৭-৮ মিনিট রান্না করে পানি দিয়ে ঝোল ঘন হওয়া পর্যন্ত ফুটাতে থাকুন। নামানোর আগে ধনেপাতা কুচি ও টমেটো কুচি দিয়ে দিন। তৈরি হয়ে গেল চিংড়ি ভুনা।

হোল ফিস উইথ চিলিসস
উপকরণ : বড় তেলাপিয়া ২টা, ফিশ সস ১ টেবিল চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, আদাকুচি ১ টেবিল চামচ, রসুনকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচকুচি ১ টেবিল চামচ, বরবটি আধা ইঞ্চি লম্বা করে কাটা আধা কাপ, চিলিসস ১ কাপ, গাজর জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, সয়াসস ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, লেবুর রস ২-৩ টেবিল চামচ, কর্নফ্লাওয়ার আধা কাপ, ময়দা আধা কাপ, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালী : (যেকোনো মাছ দিয়ে করা যাবে)। বড় তেলাপিয়া কেটে ধুয়ে নিন। ফিশসস, লাল মরিচের গুঁড়া মেখে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখুন। অন্য একটা পাত্রে পানি ফুটিয়ে ফুটন্ত গরম পানিতে বরবটি দিয়ে ১ মিনিট পরে নামিয়ে নিন। মাছের গায়ে কর্নফ্লাওয়ার মিশ্রিত ময়দা লাগিয়ে মাছ লাল করে ভেজে নিন। মাছ ভাজা হলে নামিয়ে আবার অন্য একটি পাত্রে ৪ টেবিল চামচ তেল দিয়ে চুলায় বসান। গরম হলে তাতে রসুনকুচি, আদাকুচি, কাঁচা মরিচকুচি, গাজরকুচি, বরবটি, চিলিসস, লেবুর রস, সয়াসস সামান্য গরম পানি দিয়ে ভালোভাবে কষাতে হবে। কষানো হলে পরিবেশন পাত্রে রান্না করা কিছুটা মসলা তুলে তাতে মাছ বসিয়ে আবার কিছু মসলা মাছের ওপরে দিতে হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.