ছাত্রলীগের পরিচয়ে এমএম কলেজ ছাত্রকে মারধর

যশোর অফিস

যশোর এমএম কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের কর্মী পরিচয় দিয়ে যশোর কলেজের ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মুরাদ হোসেনকে মারধর করা হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে কলেজের বাণিজ্য ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।
মুরাদ হোসেন প্রথম আলো যশোর বন্ধুসভার সাধারণ সম্পাদক। তিনি যশোরের শার্শা উপজেলার জামতলা গ্রামের বাসিন্দা। যশোর শহরের খড়কি এলাকায় থেকে লেখাপড়া করেন।
মারধরের ঘটনায় এমএম কলেজের বসায়ন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক আবদুল আলিমকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন কলেজ প্রশাসনের কাছে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুরাদ হোসেন বলেন, ইংরাজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষার ফরম পূরণের টাকা জমা দেয়ার জন্য আমরা কলেজ কার্যালয়ে যাই। এ সময় জুনিয়র একটি ছেলে সিনিয়র কয়েকজনের সাথে খারাপ ভাষায় কথা বলে। ঘটনার প্রতিবাদ করলে ওই ছেলেটি ফোন করে ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রিত কলেজের শহীদ আসাদ ছাত্রাবাস থেকে কয়েকজন ছেলেকে ডেকে আনে।
কোনো উসকানি ছাড়াই ওই ছেলেরা সেখানে গিয়ে ছাত্রলীগের কর্মী পরিচয় দিয়ে আমাকে বেদম মারধর শুরু করে। এ সময় রসায়ন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আবদুল আলিমসহ (তদন্ত কমিটির প্রধান) সহপাঠীরা গিয়ে তাদের নিবৃত করে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.