গণহত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মিয়ানমারের সাথে সম্পর্ক ছিন্নের দাবি মুসলিম লীগের

আরাকান রাজ্য তথা রাখাইনের অসহায় রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর মিয়ানমার সরকারি বাহিনীর বীভৎস গণহত্যা ও তাদেরকে বাংলাদেশে পুশইনের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ মুসলিম লীগ দলের নেতারা। জাতীয় প্রেস কাবের সামনে গতকাল বুধবার বাংলাদেশ মুসলিম লীগ আয়োজিত মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর বীভৎস গণহত্যা ও দেশত্যাগে বাধ্য করার মাধ্যমে মগের মুল্লুক শব্দের যথার্থতা মগেরা প্রমাণ করেছে। বাঙালি আখ্যা দিয়ে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বাংলাদেশে পুশইনে মিয়ানমার সরকারের বর্বর পরিকল্পনা সফল হয়েছে ভেবে তাদের তৃপ্তির ঢেঁকুর তোলার কোনো অবকাশ নেই। বাংলাদেশের জনগণ তাদের সাময়িক আশ্রয় দিয়ে মানবিক দায়িত্ব পালন করেছে মাত্র। অবিলম্বে মিয়ানমারকে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের তাদের সব নাগরিককে অধিকারসহ ফেরত নিতে হবে। কূটনৈতিক তৎপরতায় এ সমস্যা সমাধানে আগ্রহী না হলে দেশের ১৬ কোটি জনগণ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সাথে নিয়ে মিয়ানমারকে তা মেনে নিতে বাধ্য করবে।
পাশাপাশি মিয়ানমার নেত্রী সু চির এই ধরনের অমানবিক ধ্বংসাত্মক নীতিকে প্রতিবেশী একটি বড় দেশের প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি সমর্থন দণি এশিয়ার আঞ্চলিক রাজনীতি অস্থিতিশীল হয়ে ওঠার আগাম সঙ্কেত বলে উদ্বেগ জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, যে দেশ ১৯৭১ সালে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের এক কোটি উদ্বাস্তুকে আশ্রয় দেয়ার মতো উদারতা দেখাতে পারে সেই একই দেশের প্রধানমন্ত্রী কি করে এ রকম বর্বর গণহত্যাকে সমর্থন করতে পারে তা আমাদের বোধগম্য নয়। মিয়ানমারের এ ধরনের বর্বরতা কোনো সুস্থ বিবেকবান মানুষই সমর্থন করতে পারে না।
রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের রোহিঙ্গা সেল গঠন করার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে নেতারা বলেন, মিয়ানমারের প্রতি চাপ প্রয়োগের অংশ হিসেবে রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারসহ সব সম্পর্ক ছিন্ন করা এমনকি প্রয়োজনে আরো কঠোরনীতি গ্রহণ করতে হবে।
দলের প্রেসিডিয়ামের সিনিয়র সদস্য আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, আকবর হোসেন পাঠান, শহুদুল হক ভূঁইয়া, এস এইচ খান আসাদ, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান, কাজী এ এ কাফী, খোন্দকার জিল্লুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার ওসমান গনি, শেখ এ সবুর, ডা: হাজেরা বেগম, আলেয়া আক্তার আলো, সাংবাদিক ফেরদৌস আহমেদ, ফারুক আহমেদ, আবুবক্কর সিদ্দিক, ছাত্র মুসলিম লীগ নেতা নূর আলম, কাওছার আহমেদ, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.