তোলারাম কলেজছাত্র শুভ্র হত্যার ঘটনায় ৪ জন গ্রেফতার

মোবাইল ও ৬০০ টাকার জন্য হত্যা
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা

নারায়ণগঞ্জে সরকারি তোলারাম কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শাহরিয়াজ মাহমুদ শুভ্রকে হত্যার ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।
গতকাল বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর এলাকার জেলা গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান উপপরিদর্শক মফিজুল ইসলাম।
গ্রেফতারকৃতরা হলোÑ কুমিল্লার তিতাস উপজেলার মঙ্গলকান্দি এলাকার বেলায়েত হোসেনের ছেলে সিএনজিচালক মো: ইয়ামিন ওরফে আল আমিন (২৩), দেবীদ্বার উপজেলার উজালী কান্দি এলাকার কেসমত আলীর ছেলে মো: জালাল (৩০), চান্দিনা উপজেলার হোসেনপুর এলাকার আলম মিয়ার ছেলে জুয়েল (২২) ও নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জের দক্ষিণ নিমাই কাশারী এলাকার বাবুল মিয়া খানের ছেলে মো: রবিন (২৮)।
তিনি জানান, নিহত শাহরিয়াজ শুভ্রর মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে মঙ্গলবার রাত আড়াইটায় যাত্রাবাড়ী থানার শনিআখড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি সিএনজি অটোরিকশা, দু’টি চাকু এবং শুভ্রর মোবাইল ফোনসহ আসামিদের চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। মফিজুল ইসলাম আরো জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর সকালে শুভ্র ঢাকা যাওয়ার জন্য শিবু মার্কেট এলাকা থেকে ১০ টাকা ভাড়ায় সাইনবোর্ড যাওয়ার উদ্দেশে সিএনজি অটোরিকশায় ওঠে। ওই অটো রিকশাটি মূলত ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহার হতো। চালক ও যাত্রীবেশী তিনজন মিলে রাস্তার মধ্যে চাকু ও ছুরি দিয়ে ভয় দেখিয়ে শুভ্রর চোখ ও হাত বেঁধে ফেলে। সে চিৎকার করার চেষ্টা করলে মুখ চেপে ধরে। পরে তার কাছ থেকে ৬০০ টাকা ও একটি মোবাইল রেখে রাস্তার পাশে ফেলে দেয়। সেখান থেকে শুভ্র পানিতে পড়ে যায়। তবে তারা ছিনতাই করার কথা স্বীকার করলেও হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেনি।
তিনি আরো বলেন, আসামিদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে।
প্রসঙ্গত, গত ৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল থেকে নিখোঁজের পরদিন শনিবার বিকেলে ফতুল্লার ভূঁইগড় এলাকা থেকে শুভ্রের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রোববার দুপুরে পরিবারের সদস্যরা লাশটি শুভ্রের বলে শনাক্ত করেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.