আইটি কোর্স করে ক্যারিয়ার

বর্তমানে আইটি বিষয়ে পড়ার পরিকল্পনা অনেকেরই। এ ছাড়া প্রতিটি ভালো ছাত্রের স্বপ্ন হচ্ছে বিদেশে বিশেষ করে যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জার্মানিসহ ভালো বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি অর্জন। তবে স্বপ্ন পূরণের প্রধান অন্তরায় হচ্ছে পড়ালেখার  খরচ। তাই ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও সবার পক্ষে বিদেশে গিয়ে পড়াশোনা করা সম্ভব হয় না। এই বাস্তবতাকে উপলব্ধি করে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের স্বপ্নকে বাস্তবে রূপদানের লক্ষ্যে একটি সুযোগ সৃষ্টি করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি (ডিআইএ)। শিক্ষাপদ্ধতি : এ শিক্ষাব্যবস্থায় ব্রিটিশ কাউন্সিলের তত্ত্বাবধানে ফাইনাল পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হয়। প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও উত্তরপত্র পরীক্ষিত হয় যুক্তরাজ্যে। এর যাবতীয় ক্লাস অনুষ্ঠিত হয় ডিআইএতে।  সার্টিফিকেট : এ শিক্ষাব্যবস্থায় যুক্তরাজ্যের গ্রিনিচ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক বিএসসি অনার্স ইন বিজনেস ইনফরমেশন টেকনোলজি সার্টিফিকেট দেয়া হয়। ক্রেডিট ট্রান্সফার : এখানে যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের সহস্রাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রেডিট ট্রান্সফার করার সুযোগ রয়েছে।   মান নিয়ন্ত্রণ : ডিআইএ ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক মান নিয়ন্ত্রণ, অভিজ্ঞ শিক্ষক, শ্রেষ্ঠ ফলাফল ও অধিক শিক্ষার্থীর জন্য যুক্তরাজ্যের এনসিসি এডুকেশন কর্তৃক বেস্ট পার্টনার ও একাডেমিক এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে। ভর্তির যোগ্যতা : যেকোনো বিভাগের এইচএসসি/এ লেভেল অথবা সমমান পাস।   খরচ : বাংলাদেশে এই প্রোগ্রাম পড়তে মাত্র ৮ লাখ টাকা খরচ হয়, যা মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করা যায়। চাকরির সুবিধা : পাসকৃত গ্র্যাজুয়েটদের কর্মসংস্থানের হার শতভাগ। বর্তমানে ডিআইএ’র শিক্ষার্থীরা ড্যাফোডিল গ্রুপের ২৫টি প্রতিষ্ঠানে এবং বিভিন্ন ব্যাংক, সরকারি, বেসরকারি ও মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে কর্মরত আছেন। এ ছাড়া ডিআইএ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা ফ্রিল্যান্সিং করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছেন। ক্যাম্পাস সুবিধা : ডিআইএতে রয়েছে লাইব্রেরি, ল্যাব এবং শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে ওয়াইফাই ক্যাম্পাস জোন ব্যবহারের সুবিধা।  স্কলারশিপ সুবিধা : এখানে মেধাবী ও অসচ্ছলদের জন্য রয়েছে ১০%-১০০% পর্যন্ত ড্যাফোডিল ফাউন্ডেশন কর্তৃক স্কলারশিপের সুবিধা। ভর্তির 

সেশন : ডিআইএতে বছরে চারটি সেশনে (মার্চ, জুন, সেপ্টেম্বর ও ডিসেম্বর) ও চাকরিজীবীরা সান্ধ্যকালীন শিফটে ভর্তি হতে পারেন। যোগাযোগ : ডিআইএ, কনকর্ড রিজেন্সি, ১৯/১, পান্থপথ, ঢাকা। ফোন : ৯১৩৮১৩৯, ০১৭১৩৪৯৩১৬৩  www.daffodil.ac

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.