ক্যারিয়ার গড়তে ডিআইইউতে আইনে পড়াশোনা

আইন বিভাগে পড়াশোনা : ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা দেশের আইন পেশায় দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। এ ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা বার কাউন্সিল পরীক্ষায় প্রায় শত ভাগ পাস করে আসছেন ও আইনজীবী হিসেবে দেশের বিভিন্ন আদালতে পেশাভুক্ত হয়েছেন এবং বিসিএসের মাধ্যমে বিচার ও প্রশাসন বিভাগে কর্মরত আছেন। এখানে চার বছর মেয়াদি এলএলবি (অনার্স), দুই বছর মেয়াদি এলএলএম এবং এক বছর মেয়াদি এলএলএম কোর্স চালু রয়েছে। এ ইউনিভার্সিটির আইন অনুষদের অধীনে আরো একটি মানবাধিকার সম্পর্কিত কোর্স মাস্টার্স অব হিউম্যান রাইটস ল চালু রয়েছে। কোর্সটি বাংলাদেশে সর্বপ্রথম এ ইউনিভার্সিটিতে চালু করা হয়। এ কোর্স সম্পন্ন করে অনেকেই জাতিসঙ্ঘের বিভিন্ন সংস্থাসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে পূর্ণকালীন শিক্ষকের পাশাপাশি অধ্যাপক, বিচারপতি ও আইনজীবীদের দ্বারা ইউনিভার্সিটির অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। এ ইউনিভার্সিটির লাইব্রেরিতে আইন বিষয়ের বই ও রেফারেন্স বই, ডিএলআর, বিএলবি, বিএলসি, এমএলআর, বিএলটি, এডিসি ইত্যাদিসহ বাংলাদেশের সব ল জার্নালের আপ টু ডেট কপি রয়েছে।
ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এডুকেশন সেল (আইকিউএসি) : ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির নিজস্ব ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এডুকেশন সেল (আইকিউএসি) রয়েছে। এটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বিশ্বদ্যিালয় মঞ্জুরি কমিশনের অধীনে ‘হায়ার এডুকেশন কোয়ালিটি এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (হেকেপ)’ ও ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মধ্যে সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী সাতটি সেলফ অ্যাসেসমেন্ট কমিটি ২০১৫ থেকে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।
গবেষণা ও প্রকাশনা সেল : এ ইউনিভার্সিটিতে একটি স্বয়ংসম্পন্ন গবেষণা ও প্রকাশনা সেল রয়েছে। ওই সেলের পরিচালক হিসেবে রয়েছেন অধ্যাপক ড. মো: সানা উল্লাহ। সোশ্যাল বিজনেস অ্যাকাডেমিক সেল : ইতোমধ্যে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সোশ্যাল বিজনেস অ্যাকাডেমিক সেলের সাথে ইউনুস সেন্টারের এমওইউ স্বাক্ষর হয়েছে। এ সেলের অধীনে তিন মাস মেয়াদি শর্ট সার্টিফিকেট কোর্স চালু রয়েছে। টোব্যাকো কন্ট্রোল অ্যান্ড রিসার্চ সেল : ধূমপানবিরোধী আন্দোলনে এ ইউনিভার্সিটির টিসিআরসি বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসছে। হিউম্যান রাইটস অ্যাডভোকেসি সেল : সুবিধাবঞ্চিত, নিপীড়িত ও অসহায় মানুষের আইনি সহায়তা প্রদানে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির হিউম্যান রাইটস অ্যাডভোকেসি সেল বদ্ধপরিকর। লাইব্রেরি সুবিধা : এ ইউনিভার্সিটিতে রয়েছে দেশী- বিদেশী পর্যাপ্ত বই ও জার্নাল সমৃদ্ধ তিনটি লাইব্রেরি। ইন্টারনেট ও ল্যাবরেটরি সুবিধা : এ ইউনিভার্সিটি সম্পূর্ণ ওয়াইফাই-এর আওতাভুক্ত। এ ছাড়া এ ইউনিভার্সিটিতে রয়েছে প্রায় ৩১টি ল্যাবরেটরি, যা বুয়েট-ডুয়েট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের সার্বিক তত্ত্বাবধানে পরিচালনা করা হয়। ডিবেটিং ক্লাব : এ ইউনিভার্সিটিতে রয়েছে ডিবেটিং ক্লাব। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতর্কচর্চার জন্য এখানে নিয়মিত বিতর্ক কর্মশালা, উপস্থিত বক্তৃতা ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়ে থাকে। কালচারাল ক্লাব : এ ইউনিভার্সিটির কালচারাল ক্লাব বছরের বিভিন্ন সময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মঞ্চনাটক ও সামাজিক সচেতনতামূলক পথ নাটকের আয়োজন করে থাকে। স্পোর্টস ক্লাব : এ ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা স্পোর্টস ক্লাবের মাধ্যমে বিভিন্ন টিমে দেশের বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব : শিক্ষার্থীদের ইংরেজি ভাষার ওপর দক্ষতা অর্জনের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে ইন্টারন্যাশনাল ল্যাঙ্গুয়েজ ইনস্টিটিউট, ঢাকা-এর সাথে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এমওইউ স্বাক্ষর করেছে। এ ইউনিভার্সিটির সব শিক্ষার্থীর জন্য ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্সকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের আবাসিক সুবিধা : ছাত্রছাত্রীদের আবাসিক সমস্যা দূরীকরণের লক্ষ্যে এ ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসের কাছে ছেলেদের জন্য পাঁচটি ও মেয়েদের জন্য একটি হোস্টেল রয়েছে । এ ছাড়া নিকুঞ্জ জোয়ারসাহারায় ছেলেদের জন্য একটি ও গ্রিন রোডে মেয়েদের জন্য একটি হোস্টেল রয়েছে। বৃত্তি ও ক্যান্টিন সুবিধা : এ ইউনিভার্সিটিতে আইন অনুযায়ী দরিদ্র, মেধাবী ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বৃত্তি প্রদান করা হয়। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বরধারীদের বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে। বর্তমানে ২৫৩ জন শিক্ষার্থী সম্পূর্ণ বিনা বেতনে অধ্যয়নরত। এ ইউনিভার্সিটির প্রতিটি ক্যাম্পাসে ছাত্র-শিক্ষকদের জন্য নিজস্ব ক্যান্টিন রয়েছে । স্বাস্থ্যসেবা সুবিধা : এখানে শিক্ষার্থীদের সেবাদানের জন্য রয়েছে একজন পূর্ণকালীন ডাক্তার। স্থায়ী ক্যাম্পাস : এ ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস বাড্ডার সাঁতারকুলে অবস্থিত। স্থায়ী ক্যাম্পাসে ৬২ হাজার বর্গফুটের তিনটি ভবন ছাড়াও ওয়াই-ফাই, ক্যান্টিন, ব্যায়ামাগার ও আধুনিক অডিটোরিয়াম রয়েছে। স্থায়ী ক্যাম্পাসে ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে আসার জন্য বাস ও শাটল সার্ভিস রয়েছে। যোগাযোগ : স্থায়ী ক্যাম্পাস, সাঁতারকুল, বাড্ডা, ঢাকা। ফোন : ০১৯৩৯৮৫১০৬০। ৬৬, গ্রিন রোড, ঢাকা। ফোন : ০১৬১১৩৪৮৩৪৪-৮। বাড়ি-০৪, সড়ক-০১, ব্লক-এফ, বনানী, ঢাকা। ফোন : ০১৯৩৯৮৫১০৬১-৪

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.