সিটিং অ্যারেঞ্জমেন্ট

ফাহমিদা জাবীন


সময়ের সাথে সাথে অন্দরসজ্জায় বসার ব্যবস্থা ও করা হচ্ছে নানা ভাবে। কখনো ঘরজুড়ে দামি সোফা সেট, কখনো এক কোনায় লো হাইট সিটিং অ্যারেঞ্জমেন্ট। কখনো বা ডেকোরেটেড মোড়া। তবে বসার ব্যবস্থায় ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় ভিন্ন ভিন্ন সজ্জা খুব সহজেই সবার নজর কাড়ে। সেই সাথে থাকতে হবে সিটিং অ্যারেঞ্জমেন্টে ব্যবহৃত চমৎকার ডেকর আইটেম। আর রঙের আকর্ষণীয় ব্যবহার।
আগের দিনে বাড়িতে কোনো অনুষ্ঠানে বসার ঘরে ঢালাও ধবধবে সাদা চাদরে মোড়া পুরু গদি পাতা হতো এবং তার সাথে অবশ্যই থাকত ছোট ছোট তাকিয়া। আর এর বাইরে রোজকার অতিথি আপ্যায়নের জন্যও থাকত ছিমছাম সাদামাটা ব্যবস্থা।
অভিজাত বাড়িতে দেখা যেত কখনো পুরু গদি দেয়া সোফা কিংবা মধ্যবিত্তের বাড়িতে দেখা যেত কাঠের ছিমছাম সোফা বা বেতের চেয়ার অথবা নেহাতই কিছু কাঠের চেয়ার। মাঝে মধ্যে আবার কোনো কোনো বাড়িতে দেখা যেত পেল্লায় মাপের আরাম কেদারা। সেখানে কুশন অথবা ম্যাট নিয়ে কেউই খুব একটা মাথা ঘামাতেন না। কিন্তু সামান্য রঙের ছোঁয়া অথবা একটু ইনোভেটিভ টেবিল ম্যাট পুরো বসার জায়গার চেহারায় আমূল পরিবর্তন এনে দিতে পারে। তবে সময়ের বদলের সাথে সাথে বদল এসেছে চিন্তাভাবনারও। তাই বসার জায়গার সাদামাটা ডেকোরে এসেছে রঙের এবং ইনোভেশনের ছোঁয়া। আপনার বাড়িতে আসা অতিথির কাছে আপনার বসার ঘর হয়ে উঠতে পারে এক উষ্ণ অভ্যর্থনার আদর্শ উদাহরণ। আর এর সাথে যদি যোগ হয় উজ্জ্বল ওয়াল কালার এবং লাইটিং। ব্যস ঘরের সাজ হয়ে উঠবে অভিনব।
ট্যাডিশনাল ও গর্জাস লুকে করা ডায়মেনশন আনবে বিভিন্ন চমৎকার রঙের সমন্বয়।
বাড়ির বসার ব্যবস্থায় বিভিন্ন ফ্যাব্রিকের ব্যবহার বসার ব্যবস্থায় আনবে ভিন্ন মাত্রা। বসার ঘরের এক দিকে রাখুন লো হাইটের হাই-ব্যাকড দড়ির চেয়ার। কুশন কভারই হোক অথবা দড়ি কিংবা পরদা সবেতেই রাখুন ভাইব্রেন্সির ছোঁয়া। ‘রেকারেন্ট থিম’ ফুশিয়া এবং ভায়োলেট, সব মিলিয়ে সৃষ্টি হয় এক উচ্ছল কম্বিনেশন।
মাটিতে বসে আড্ডা দেয়ার মজাই আলাদা। আর আড্ডার ফুরফুরে মেজাজের সাথে যদি যোগ হয় রঙের উষ্ণতা, তাহলে তো কথাই নেই। গাঢ় রঙের গদির ওপরে মাল্টিকালার স্ট্রাইপড শতরঞ্জি বিছানো যায়। ব্রাইট রেড আর গ্রিনের ওভারসাইজড কুশন দিন এতে।
বসার ঘর থেকে বেরিয়ে ডাইনিং স্পেসে যাওয়ার আগের একফালি জায়গায় দিব্যি বানিয়ে নেয়া যায় একটা ছোট্ট বসার ব্যবস্থা। সাদামাটা গোল টেবিলের দু’পাশে রাখুন বেতের হাই-ব্যাকড গার্ডেন চেয়ার। সাধারণ এই অ্যারেঞ্জমেন্ট নজর কাড়ে। ফ্লোরাল মোটিফের কন্টিনিউয়েশন দেয়া যায় কুশন কভারেও। -এর মধ্যেই লুকিয়ে আছে ইন্টিরিয়র ডেকোরেশনের মুনশিয়ানা। আর এ সব কিছুতেই একটা অন্য মাত্রা যোগ করে সুন্দর ফ্লাওয়ার ডেকোরেশন। রঙের এই সুন্দর কো-অর্ডিনেশন বাড়িতে আসা অতিথির নজর কখনোই এড়াতে পারে না।
কুশন এবং আপহোলস্ট্রিতেও রাখতে পারেন উজ্জ্বল রঙের ছোঁয়া।
অন্দর সাজে বিভিন্ন রঙের ব্যবহারে ফুটে ওঠে সেই বাড়ির মানুষের রুচি বোধ। বিভিন্ন রঙের ব্যবহার একদিকে যেমন সৃষ্টি করে উচ্ছল পরিবেশ তেমনি চার দিকে ছড়িয়ে পড়ে পজিটিভ ভাইব।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.